এন্টি ইউনিয়ন সংক্রান্ত তথ্য

ক্রমিক নং প্রাপ্তির তারিখ এবং ডাইরি নং অভিযোগের বিষয় প্রতিষ্ঠানের নাম অভিযোগকারীর নাম এবং ঠিকানা গৃহীত কার্যক্রম তদন্ত কর্মকর্তা বর্তমান অবস্থা মন্তব্য
1 ১৭/১১/১৩, ডাইরী নং-২৮০১ সোয়েব নীট কম্পোজিট শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের কার্যকরী কমিটির সকল কর্মকর্তাসহ মোট ৪৪ জন সক্রিয় সদস্যকে কারণ দর্শানো নোটিশ দিয়ে কাজ হতে বিরত রাখার প্রসঙ্গে। সোয়েব নীট কম্পোজিট লিঃ, কুতুবপুর, ফতুল্লা, নারায়নগঞ্জ। মোঃ সম্রাট সভাপতি ও নাজমা আক্তার, সাধারণ সম্পাদক, সোয়েব নীট কম্পোজিট শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রেজিনং- ঢাকা-৪৭৭৫, কুতুবপুর, ফতুল্লা, নারায়নগঞ্জ। অভিযোগ প্রাপ্তির পর রেজিষ্ট্রার অব ট্রেড ইউনিয়ন্স, ঢাকা বিভাগ, ঢাকা মহোদয় তদন্তের জন্য পত্র জারী করা হয়। সোয়েব নীট কম্পোজিট লিঃ, কুতুবপুর, ফতুল্লা, নারায়নগঞ্জ কারখানাটি গত ১১ নভেম্বর/২০১৩ ইং তারিখে বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ এর ১৩ (১) ধারা মোতাবেক বন্ধ ঘোষণা করা হয়। গত ১৯/১২/২০১৩ ইং তারিখ শ্রমিক মালিক সমঝোতার ভিত্তিতে শ্রমিকদের সকল পাওনাদি পরিশোধ করা হয়। সহকারী শ্রম পরিচালক, মোহাম্মদ সাদেকুজ্জামান গত ১০/১/২০১৩ ইং তারিখে পুনরায় সরেজমিনে তদন্ত করে কারখানটি বন্ধ পাওয়া যায়। শ্রমিক মালিক সমঝোতার ভিত্তিতে সকল শ্রমিকদের পাওনাদি বুঝে নেওয়ার বিষয়টি সমাধান ঘটেছে। ইউনিয়নের সভাপতিকে ১৮/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ পত্র নং-আরটিইউ/৪৭৭৫/২০১৬/৬১ দ্বারা বিষয়টি অবগত করে অভিযোগটির নিষ্পত্তি করা হয়। নিষ্পত্তি
2 ১৮/১১/১৩, ডাইরী নং-২৮১৬ দি ওয়েলটেক্স লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা- , সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ মোট ০৩ জন সক্রিয় সদস্যকে মৌখিকভাবে টার্মিনেট করার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এর বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ। দি ওয়েলটেক্স লিঃ, মুলাইদ, মাওনা, শ্রীপুর, গাজীপুর। লিপি, সভাপতি দি ওয়েলটেক্স লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা- ৪৮১১। ০৭/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ অভিযোগের বিষয়ে ইউনিয়ন অফিস এবং কারখানায় সরেজমিনে তদন্ত করেন। সরেজমিন তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন যে, অভিযোগকারী স্বেচ্ছায় চাকুরী হতে অব্যাহতি নিয়ে সকল পাওনাদি বুঝে নিয়েছেন। আঃ রহিম খান, শ্রম কর্মকর্তা, আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর, টঙ্গী, গাজীপুর। আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর, টঙ্গী, গাজীপুর এর শ্রম কর্মকর্তা জনাব আব্দুর রহিম খান গত ০৯/১/১৬ খ্রিঃ তারিখ কারখানা ও ইউনিয়ন অফিস সরেজমিন তদন্ত করে তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন যে, অভিযোগকারী সকল পাওনাদি বুঝে স্বেচ্ছায় চাকুরী হতে অব্যাহিত নিয়ে বিষয়টি সমঝোতার মাধ্যমে নিষ্পত্তি করেছেন। ইউনিয়নের সভাপতি ও ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষকে ১৯/৭/১৬ খ্রিঃ তারিখ পত্র নং-আরটিইউ/ ৪৮১১/৫৫৩, তারিখ-১৯/৭/১৬ খ্রিঃ দ্বারা বিষয়টি অবগত করে অভিযোগটি নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। নিষ্পত্তি
3 ১৭/১১/১৩, ডাইরী নং-২৮০০ ফ্যাশনটেক্স নীটওয়্যার শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রেজিনং- ঢাকা-৪৮০৭, সভাপতিকে মৌখিকভাবে টার্মিনেট করার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এর বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ। ফ্যাশনটেক্স নীটওয়্যার লিঃ, সিঙ্গাইর রোড, হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা। মোঃ মোবারক হোসেন, সভাপতি, ফ্যাশনটেক্স নীটওয়্যার শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রেজিনং- ঢাকা-৪৮০৭ ১০/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ অভিযোগের বিষয়ে ইউনিয়ন অফিস এবং কারখানায় উপ-শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ জিয়াউল হক খান সরেজমিনে তদন্ত করেন। তদন্তে প্রতিবেদনে দেখা যায় যে, মালিকপক্ষ এর বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের বিষয়ে ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ মোবারক হোসেন ও মোঃ রম্নবেল সাধারণ সম্পাদক এর সাক্ষাৎকার নেয়ার জন্য ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষকে জানানো হয় এবং বেতন রেজিষ্টারে সভাপতির নাম খুজে পাওয়া যায় নাই। এই বিষয়ে কর্তৃপক্ষ জানান যে, উক্ত শ্রমিক কোন সময়ই কারখানায় কর্মরত ছিল না। অপরদিকে রম্নবেল মে/২০১৪ পর্যমত্ম তার বেতন উত্তোলন করে চাকুরী ছেড়ে চলে গিয়েছে। তদন্তকালে অভিযোগকারীদেরকে পাওয়া যায় নাই। উপ-শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ জিয়াউল হক খান। উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। ইহা যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- যুশ্রপ/৫২/১৩/ঢাকা-৪৮০৭, তারিখ-১৮/১/১৬ খ্রিঃ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারীসহ সকল পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
4 ১৭/১১/১৩, ডাইরী নং-২৭৯৮ ডরীন ওয়াশিং প্লান্ট শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা-৪৮০৮, সাধারণ সম্পাদকসহ ১৪ জন ইউনিয়নের সক্রিয় সদস্যকে মৌখিকভাবে টার্মিনেট করার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষর বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ। ডরীন ওয়াশিং প্লান্ট লিঃ, দক্ষিণ পানিশাইল, এন কে লিংক রোড, গাজীপুর। মোঃ কাজল, সভাপতি, আবুল খায়ের, সাধারণ সম্পাদক, ডরীন ওয়াশিং প্লান্ট শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা-৪৮০৮। অভিযোগের বিষয়ে ইউনিয়ন অফিস এবং কারখানা সরেজমিনে তদন্তের জন্য ০৭/১/২০১৬ তারিখে যুগ্ম শ্রম পরিচালক অফিস ঢাকা হতে পত্র প্রেরণ করা হয়। সংশ্লিষ্ট শ্রম কর্মকর্তা ১০/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখে সরেজমিনে তদন্ত করে ১১/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ প্রতিবেদন দাখিল করেন। তদন্তকালীন সময়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ জানায়, অভিযোগকারী ১৪ জন শ্রমিক চাকুরী হতে স্বেচ্ছায় অব্যাহতি দিয়েছে। আঃ রহিম খান, শ্রম কর্মকর্তা, আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর, টঙ্গী, গাজীপুর। তদন্তকারী কর্মকর্তা প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন যে, অভিযোগকারী ১৪ জন শ্রমিক স্বেচ্ছায় চাকুরী হতে অব্যাহতি নিয়ে সকল পাওনাদি বুঝে নিয়েছেন। উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- যুশ্রপ/৫৩/১৩/ঢাকা-৪৮০৮/৮৩, তারিখ-২১/১/১৬ খ্রিঃ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারীসহ সকল পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
5 ১৭/১১/১৩, ডাইরী নং-২৭৯৯ নরওয়েষ্ট ইন্ডাষ্ট্রিজ লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন , রেজিঃ নং-ঢাকা-৪৭৩৭ এর কর্মকর্তাদেরকে ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ ৪ জন সদস্যকে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এর বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ। নরওয়েষ্ট ইন্ডাষ্ট্রিজ লিঃ, বাড়ী-৫১৭/২, রোড নং-১০, বাড়ীধারা ডিওএইচএস, ঢাকা। আলমগীর হোসেন, সভাপতি, কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন সাধারণ সম্পাদক, নরওয়েষ্ট ইন্ডাষ্ট্রিজ লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, (রেজি নং ঢাকা- ৪৭৩৭), ৩১/এফ, তোপখানা রোড (নীচতলা), ঢাকা-১০০০। এ দপ্তরে প্রাপ্ত ইউনিয়ন কর্তৃক ১৭/১১/২০১৩ খ্রিঃ তারিখে মালিকের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়ে হালনাগাদ অবস্থা জানার জন্য গত ১৭/০৫/২০১৫ খ্রিঃ তারিখে এ দপ্তরের সংশ্লিষ্ট সহকারী শ্রম পরিচালককে সরেজমিনে তদন্তের জন্য দায়িত্ব প্রদান করা হয়। সরেজমিন তদন্ত শেষে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা নথির মাধ্যমে জানান যে, ব্যবসায়িক মন্দা জনিত কারণে কর্তৃপক্ষ সকল শ্রমিকদেরকে তাঁদের আইনানুগ পাওনাদি পরিশোধ করে গত ১৬/০৪/২০১৫ খ্রিঃ তারিখ থেকে প্রতিষ্ঠানটি সম্পূর্ণরূপে বন্ধ ঘোষণা করেন। আরও জানা যায় আইনানুগ পাওনাদি পরিশোধের সময় কলকারখানা পরিদর্শন অধিদপ্তরের কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন এবং বিষয়টি সমঝোতার মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম, সহকারী শ্রম পরিচালক ব্যবসায়িক মন্দাজনিত কারণে কারখানা কর্তৃপক্ষ কলকারখানা প্রতিষ্ঠান ও পরিদর্শন অধিদপ্তর কর্মকর্তার উপস্থিতিতে সকল শ্রমিককে আইনানুগ পাওনাদি পরিশোধ করে গত ১৬/৪/১৫ খ্রিঃ তারিখ থেকে প্রতিষ্ঠানটি সম্পূর্নরূপে বন্ধ ঘোষণা করে উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি সমঝোতার মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। ইহা পত্র নং-আরটিইউ/ ঢাকা-৪৭৩৭/৫২১, ১৩/৭/১৬ খ্রিঃ তারিখের পত্রের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারীসহ সকল পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
6 ১৭/১১/১৩, ডাইরী নং-২৮০২ বভস্ এ্যাপারেলস শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রেজিঃ নং-ঢাকা-৪৭৮৯ এর ৫ জন কর্মকর্তাকে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এর বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ। বভস্ এ্যাপারেলস লিঃ, হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা। আব্দুল মোন্নাফ,সভাপতি, মোঃ ইউসুফ আলী, সাধারণ সম্পাদক, বভস্ এ্যাপারেলস লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন (রেজিনং-ঢাকা-৪৭৮৯) ৩১/এফ, তোপখানা রোড (নীচ তলা), ঢাকা-১০০০। চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে সভাপতি আব্দুল মোন্নাফসহ মোট ০৪ জন শ্রম আদালতে মজুরী মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১৮২২/২০১৩,১৮২১/২০১৩, ১৮২০/২০১৩ এবং ১৮১৯/২০১৩। আদালতে মামলা বিচারাধীন থাকা অবস্থায় বিষয়টি সমাধান ইউনিয়ন কর্তৃক গত ১৭/১১/২০১৩ খ্রিঃ তারিখে উত্থাপিত অসৎ শ্রম আচরণ সম্পর্কিত অভিযোগটি অত্র দপ্তরে পাওয়ার পর তাৎক্ষণিকভাবে টেলিফোনের মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষকে আইনের বিধানাবলী স্মরণ করিয়ে সংশ্লিষ্ট চাকুরীচ্যূত শ্রমিকদেরকে চাকুরীতে পুনঃর্বহালের পরামর্শ দেয়া হয়। এরই ধারাবাহিকতায় এ দপ্তরের পত্রনং-আরটিইউ/৪৩/১৯,তারিখ ০৭/১/২০১৬ খ্রিঃ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট পক্ষগণকে অবহিত করে বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে রিপোর্ট দেয়ার জন্য এ দপ্তরের সংশ্লিষ্ট সহকারী শ্রম পরিচালককে দায়িত্ব দেয়া হয়। দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা তদন্ত শেষে নথির মাধ্যমে জানান যে ইতোমধ্যে উত্থাপিত বিরোধটি গত ২০/০৩/২০১৫ খ্রিঃ তারিখে জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন এর নেতৃবৃন্দ, ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এবং ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের মধ্যে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা ও মিমাংসা হয়েছে। হওয়ায় তাঁরা ইতোমধ্যে মামলা প্রত্যাহার করেন। মোঃ সাইকুল ইসলাম, সহকারী শ্রম পরিচালক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল মোন্নাফ গত ১০/১/২০১৬ তারিখে এক লিখিত পত্রের মাধ্যমে নিষ্পত্তির বিষয়টি এ দপ্তরকে নিশ্চিত করেছেন। এমতাবস্থায়,উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের মধ্যে বিষয়টি সমঝোতার মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয় এবং পত্র নং-আরটিইউ/ঢাকা-৪৭৮৯/ ৫২৬, ১৪/৭/ ২০১৬ খ্রিঃ তারিখে অত্র দপ্তর কর্তৃক প্রেরিত পত্রের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে অবগত করা হয়। নিষ্পত্তি
7 ১৩/১১/১৩, ডাইরী নং-২৭৭১ বেসিক এ্যাপারেলস লিঃ, ইউনিয়নের কর্মকর্তা এবং সদসদের চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এর অসৎ শ্রম আচরণ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। বেসিক এ্যাপারেলস লিঃ, ১৩৫-১৩৮ আবদুল্লাহপুর, উত্তরা , ঢাকা। মোঃ কাশেম,সভাপতি, বেসিক এ্যাপারেলস লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন (রেজিনং-ঢাকা-৪৮৪৭) ৩১/এফ, তোপখানা রোড (নীচ তলা), ঢাকা-১০০০। ইউনিয়ন কর্তৃক গত ১৩/১১/২০১৩ খ্রিঃ তারিখে উত্থাপিত অসৎ শ্রম আচরণ সম্পর্কিত অভিযোগটি অত্র দপ্তরে পাওয়ার পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/১৫০/১৩/১২৫(সি), তারিখ ০৬/১০/২০১৩ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট পক্ষগণকে অবহিত করে বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে রিপোর্ট দেয়ার জন্য এ দপ্তরের সংশ্লিষ্ট সহকারী শ্রম পরিচালককে দায়িত্ব দেয়া হয় । তদন্ত কর্মকর্তার রিপোর্ট অনুযায়ী প্রতীয়মান হয় যে, ৭২ জন শ্রমিক স্বেচ্ছায় চাকুরী ছেড়ে চলে যায় এবং প্রত্যেককে শ্রম আইনের বিধান মোতাবেক ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক পাওনাদি পরিশোধ করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় এ দপ্তরের পত্রনং-আরটিইউ/২১৫/ঢাকা-৪৮৪৭/২০,তারিখ ০৭/১/২০১৬ খ্রিঃ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট পক্ষগণকে অবহিত করে বিষয়টি সম্পর্কে হালনাগাদ প্রতিবেদন দেয়ার জন্য এ দপ্তরের সংশ্লিষ্ট সহকারী শ্রম পরিচালককে দায়িত্ব দেয়া হয়। দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা তদন্ত শেষে নথির মাধ্যমে জানান যে, অভিযোগকারীসহ ৭২ জন শ্রমিক স্বেচ্ছায় চাকুরী ছেড়ে চলে যায় এবং প্রত্যেককে শ্রম আইনের বিধান মোতাবেক পাওনাদি পরিশোধ করা হয়েছে (কপি সংযুক্ত)। তিনি আরও জানান যে, বিষয়টি জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন নেতৃবৃন্দ,ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এবং ইউনিয়ন প্রতিনিধিদের পারস্পরিক সমঝোতার মাধ্যমে সুষ্ঠু সমাধান হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম, ইউনিয়ন প্রতিনিধি মোঃ কাসেম গত ১০/১/২০১৬ তারিখে এক লিখিত পত্রের মাধ্যমে নিষ্পত্তির বিষয়টি এ দপ্তরকে নিশ্চিত করেছেন। এমতাবস্থায়, উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। ইহা যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- যুশ্রপ/২১৫/২০১৩/ ঢাকা-৪৮৪৭/৫০, তারিখ-১৭/০১/২০১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলপক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
8 ০৬/১/১৪,ডাইরী নং-৫৭ গ্লোরিয়াস ফ্যাশন এন্ড ডিজাইন ওয়্যার লিঃ কর্তৃপক্ষ এর অসৎ শ্রম আচরণ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। গ্লোরিয়াস ফ্যাশন এন্ড ডিজাইনওয়্যার লিঃ, ৫০, মধ্য গাজীরচট, আলিয়া মাদ্রাসা, আশুলিয়া, সাভার,ঢাকা। মোঃ মিলন মোঃ উজ্জল যথাক্রমে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, গ্লোরিয়াস ফ্যাশন এন্ড ডিজাইন ওয়্যার লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন (রেজিনং-ঢাকা-৪৮৪৩) অভিযোগ প্রাপ্তির পর কারখানা কর্তৃপক্ষকে টেলিফোনিক নির্দেশনা দেয়া হয় বিষয়টি মিমাংসা করার জন্য। সে মতে অভিযোগকারী ও ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ উভয়ই আপোষ মিমাংসার মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তি করেন যা সরেজমিন তদন্তে পাওয়া যায়। মোঃ আবু হাসানাত, সহকারী শ্রম পরিচালক সর্বশেষ ০৭/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখের পত্রের মাধ্যমে ০৯/১/১৬ খ্রিঃ তারিখ সরেজমিন তদন্ত করে তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন যে, উত্থাপিত বিরোধটি গত ১৩/৫/১৫ খ্রিঃ তারিখে জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন এর নেতৃবৃন্দ, ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এবং ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের মধ্যে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা ও মীমাংসা হয়। উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। ইহা এ দপ্তরের পত্র যুশ্রপ/১৮০/২০১৬/ ঢাকা-৪৮৪৩/৬৮, তাং ১৮/১/১৬ এর মাধ্যমে নিষ্পত্তির বিষয়টি সংশ্লিষ্ট পক্ষগনকে জানিয়ে পত্র দেয়া হয় নিষ্পত্তি
9 ১৫/৬/১৪,ডাইরী নং-১৫২৩ গালিমপুর সুয়েটারস লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন,রেজিনং ঢাকা-৪৯৩০ এর সভাপতিসহ ইউনিয়নের অন্যান্য কর্মকর্তা ও সক্রিয় সদস্যদেরকে চাকুরীচ্যুতি করার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এর বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ। গালিমপুর সুয়েটারস লিঃ, মজিদপুর, সাভার, ঢাকা। সভাপতি- হাফেজ মোঃ আব্দুল মজিদ, গালিমপুর সুয়েটারস লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন,রেজিনং- ঢাকা-৪৯৩০। ১০/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ অভিযোগের বিষয়ে ইউনিয়ন অফিস এবং কারখানায় উপ-শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ জিয়াউল হক খান সরেজমিনে তদন্ত করেন। তদন্তে প্রতিবেদনে দেখা যায় যে,কারখানাটি অন্য কোন স্থানে স্থানান্তরিত হয়েছে, তবে কোন ঠিকানা তাদের জানা নেই। এছাড়া অভিযোগকারীকে অনেক খুজাঁখুজি করেও তার কোন সন্ধান পাওয়া যায় নাই। পরবর্তীতে উক্ত বিষয়ে এ দপ্তরে আর কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। উপ-শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ জিয়াউল হক খান। তদন্তকারী কর্মকর্তার প্রতিবেদন অনুযায়ী কারখানার অস্তিত্ত্ব না থাকায় উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। ইহা এ দপ্তরের পত্র যুশ্রপ/১০৮/২০১৪/ ঢাকা-৪৯৩০/৬৫, তাং ১৮/১/১৬ এর মাধ্যমে নিষ্পত্তির বিষয়টি সংশ্লিষ্ট পক্ষগনকে জানিয়ে পত্র দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
10 ২৯/১১/১৫, ডাইরী নং-৩১৯৫ মাসকো কটনস লিঃ শ্রমিক ঐক্য ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা-৪৮৩৭ এর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ মোট ১১ জন শ্রমিকদেরকে চাকুরীচ্যুতি করার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এর বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ। মাসকো কটনস লিঃ, রেদওয়ান কমপ্লেক্স, ৪৪ গাজীপুরা, টঙ্গী, গাজীপুর। মাসকো কটনস লিঃ শ্রমিক ঐক্য ইউনিয়ন,রেজিনং-ঢাকা-৪৮৩৭, আব্দুল মজিদ অবঃ ক্যাপ্টেন সাহেবের বাড়ী, বোর্ডবাজার, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর। ৩০/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ অভিযোগের বিষয়ে ইউনিয়ন অফিস এবং কারখানায় উপ-শ্রম পরিচালক মোঃ জিয়াউল হক খান এবং সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম সরেজমিনে তদন্ত করেন। তদন্ত প্রতিবেদনেদেখা যায় অভিযোগকারী ১১ জন যারা স্বেচ্ছায় চাকরী থেকে ইস্তফা দিয়ে আইনানুগ পাওনাদি নিয়ে কারখানা থেকে চলে যায়। বর্তমানে অভিযোগকারীগন কারখানায় কেহই কর্মরত নেই। সরেজমিন তদন্তে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এর বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের বিষয়ে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়নি। সালাহউদ্দীন মাহমুদ, উপ-শ্রম পরিচালক, ঢাকা বিভাগীয় শ্রম দপ্তর এবং মোঃ শফিকুল ইসলাম, সহকারী শ্রম পরিচালক, আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর, টঙ্গী, গাজীপুর। দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে ০৯/৫/১৬ তারিখে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে। তিনি প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন সকলের অংশগ্রহণে যথাযথ প্রক্রিয়ায় নির্বাচনটি অনুষ্ঠিত হয়নি। তাই সকলের অংশগ্রহণে কার্যকরি কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সুপারিশ করা হয়। এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৪৮৩৭/৬৮৬, তাং ১৪/৮/১৬ এর মাধ্যমে সকলের অংশ গ্রহণে বহুল প্রচারের মাধ্যমে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে জানানো হয়। নিষ্পত্তি
11 ১০/৮/১৫,ডাইরী নং-২১৮৭ আলিফ ক্যাজুয়্যাল ওয়্যার লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন এর নির্বাচিত সভাপতিকে বেআইনীভাবে কাজে যোগদান হতে বিরত রাখার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এর বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ। আলিফ ক্যাজুয়্যাল ওয়্যার লিঃ,ভোগড়া, জয়দেবপুর, গাজীপুর। মোঃ নাইচ ইসলাম, সভাপতি, আলিফ ক্যাজুয়্যাল ওয়্যার লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন। ১০/৯/২০১৫ খ্রিঃ তারিখ অভিযোগের বিষয়ে ইউনিয়ন অফিস এবং কারখানায় সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম সরেজমিনে তদন্ত করেন। তদন্তে প্রমানিত হয় যে, অভিযোগকারী জনাব নাইচ ইসলাম তার সমুদয় পাওনাদি বুঝে পেয়ে স্বেচ্ছায় গত ০১/৮/২০১৫ খ্রিঃ তারিখ চাকুরী হতে ইস্তফা দিয়েছেন। মোঃ শফিকুল ইসলাম, সহকারী শ্রম পরিচালক, আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর, টঙ্গী, গাজীপুর। সর্বশেষ ০৩/৯/১৫ খ্রিঃ তারিখের পত্রের মাধ্যমে ১০/৯/১৫ খ্রিঃ তারিখ সরেজমিন তদন্ত করে তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন যে, উত্থাপিত বিরোধটি গত ১৮/৮/১৫ খ্রিঃ তারিখে অভিযোগকারী নাইচ ইসলাম স্বেচ্ছায় চাকুরী হতে অব্যাহতি নিয়ে শিল্প পুলিশ ও গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের নেতা আসাদুল ইসলাম মাসুদ এর উপস্থিতিতে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা ও মীমাংসা হয়। উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। নিষ্পত্তির বিষয়টি এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/৪২৪/১৫/৫৫২, তারিখ ১৯/৭/২০১৬ বরে মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে অবগত করে পত্র দেয়া হয়েছে। নিষ্পত্তি
12 ০২/১০/১৫, ডাইরী নং-২৩৭৭ বি ই ও এ্যাপারেলস ম্যানুঃ লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা-৪৮৮৬, কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ইউনিয়নের কর্মকর্তা ও সদস্যগনকে ইউনিয়ন কর্মকান্ড হতে বিরত রাখার জন্য প্রতিষ্ঠান হতে ছাঁটাই করার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এর বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ। বি ই ও এ্যাপারেলস ম্যানুঃ লিঃ, ভান্নারা, মৌচাক, কালিয়াকৈর, গাজীপুর। মোঃ আরিফুল ইসলাম, সভাপতি, বি ই ও এ্যাপারেলস ম্যানুঃ লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা-৪৮৮৬, ভান্নারা, মৌচাক, কালিয়াকৈর, গাজীপুর। অভিযোগের বিষয়ে ইউনিয়ন অফিস এবং কারখানা সরেজমিনে তদন্তের জন্য ০৭/১/২০১৬ তারিখে যুগ্ম শ্রম পরিচালক অফিস ঢাকা হতে পত্র প্রেরণ করা হয়। সংশ্লিষ্ট শ্রম কর্মকর্তা ০৯/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখে সরেজমিনে তদন্ত করে ১১/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ প্রতিবেদন দাখিল করেন। তদন্তকারী কর্মকর্তা জানান যে, বর্তমানে আর্থিক সংকট হেতু গত ২৪/৯/২০১৪ খ্রিঃ তারিখ হতে কারখানা বন্ধ রয়েছে এবং অভিযোগকারীসহ কারখানার সকল শ্রমিক তাদের পাওনাদি বুঝে নিয়েছেন। জনাব সালাহউদ্দীন মাহমুদ, উপ-শ্রম পরিচালক, জনাব মুহাম্মদ রকিবুল হাসান, শ্রম কর্মকর্তা আর্থিক সংকটজনিত কারণে কারখানা কর্তৃপক্ষ সকল শ্রমিককে আইনানুগ পাওনাদি পরিশোধ করে গত ২৪/৯/১৪ খ্রিঃ তারিখ থেকে প্রতিষ্ঠানটি সম্পূর্ণরূপে বন্ধ ঘোষণা করে বিষয়টি সমঝোতার মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয় এবং অভিযোগকারী ০২/১০/২০১৪ খ্রিঃ তারিখে দায়েরকৃত অভিযোগটি প্রত্যাহারের মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয়। নিষ্পত্তির বিষয়টি এ দপ্তরের আরটিইউ/ঢাকা-৪৮৮৬/৫৭৯, তারিখ- ২৫/৭/১৬ খ্রিঃ মাধ্যমে নিষ্পত্তির বিষয়টি সংশ্লিষ্ট সকলকে অবগত করে পত্র দেয়া হয়েছে। নিষ্পত্তি
13 ০১/৬/১৫, ডাইরী নং-১৫৭৫ প্রাইম সুয়েটার লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজি নং-ঢাকা-৫০৩৬ এর ১৭ জন সক্রিয় কর্মীকে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এর বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ। প্রাইম সুয়েটার লিঃ, শরীফপুর, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর। মোঃ আমজাদ হোসেন- সভাপতি, মোঃ বাবু- সাধারণ সম্পাদক, প্রাইম সুয়েটার লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজি নং-ঢাকা-৫০৩৬, দিঘীরচালা, চৌরাসত্মা, জয়দেবপুর, গাজীপুর। অভিযোগের বিষয়ে ইউনিয়ন অফিস এবং কারখানা সরেজমিনে তদন্তের জন্য ১৬/৭/২০১৬ তারিখে পত্র নং- আরটিইউ/ঢাকা-৫০৩৬/৫৩৪ এর মাধ্যমে ০২ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটি কর্তৃক ১৯/৭/১৬ তারিখে কারখানা ইউনিয়ন অফিসসহ সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষ এর সাথে সরেজমিনে তদন্ত করে প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন কারখানা কর্তৃপক্ষ বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন, ইন্ডাষ্ট্রিয়াল, গ্লোবাল ইউনিয়ন এবং একর্ড এর প্রতিনিধির সমন্বয়ে ২১/৪/১৬ এবং ২৫/২/১৬ তারিখে ভিন্ন ভিন্ন দুটি চূক্তি স্বাক্ষরিত হয়। উক্ত চূক্তির মাধ্যমে ৪০ জন শ্রমিকের সকল পাওনা পরিশোধসহ কারখানা স্থানান্তর করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সমঝোতার চূক্তি মোতাবেক ৪০ জন শ্রমিকের আইনানুগ পাওনাদি পরিশোধ করা সহ কারখানা স্থানান্তর করা হয়। সালাহউদ্দীন মাহমুদ, উপ শ্রম পরিচালক এবং মোঃ সাইকুল ইসলাম, সহকারী শ্রম পরিচালক, বিভাগীয় শ্রম দপ্তর, ঢাকা। তদন্ত কমিটি কর্তৃক প্রতিবেদনে আরও উল্লেখ করেন ইউনিয়নের সভাপতি জনাব মোঃ আমজাদ হোসেন এবং সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ হাবিবুর রহমানকে ফৌজদারী মামলার অন্তভূক্ত করার বিষয়টি কারখানার বহিরাগত ঘটনা এবং ইহা গার্মেন্টস সংশ্লিষ্ট নয়। সে মোতাবেক উক্ত ফৌজদারী মামলার সাথে কারখানা কর্তৃপক্ষর সংশ্লিষ্টতার কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি। বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। ইহা এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫০৩৬/৫৫২, তারিখঃ ২৮/৭/১৬ খ্রি. এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট পক্ষগনকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
14 ০৬/৮/১৫, ডাইরী নং-২১৬৯ রেজিষ্ট্রেশনের আবেদন বিবেচনাধীন থাকা অবস্থায় সভাপতি তাহমিনাকে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষর বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ। বেঙ্গল জিন্স লিঃ, ১৩৫-১৩৮, আব্দুল্লাহপুর, উত্তরা, ঢাকা। মোসাঃ তাহমিনা,সভাপতি, বেঙ্গল জিন্স লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন (প্রস্তাবিত), ৩১/এফ, তোপখানা রোড (নীচ তলা), ঢাকা-১০০০। মোছাঃ তাহমিনা, সভাপতি, প্রস্তাবিত বেঙ্গল জিন্স লিঃ শ্রমিকও কর্মচারী ইউনিয়ন, কর্তৃক গত ০৬/০৮/২০১৫ তারিখে উত্থাপিত অসৎ শ্রম আচরণ সম্পর্কিত অভিযোগটি অত্র দপ্তরে পাওয়ার পর এ দপ্তরের পত্র নং- আরটিইউ/৪৩৫ /১৪৬২ (সি), তারিখ ১৭/৯/২০১৫ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষকে আইনের বিধানাবলী স্মরণ করিয়ে সংশ্লিষ্ট চাকুরীচ্যূত শ্রমিককে চাকুরীতে পুনঃবহালের পরামর্শ দেয়া হয়। এরই ধারাবাহিকতায় এ দপ্তরের পত্রনং-আরটিইউ/৪৩৫/১৭, তারিখ ০৭/১/২০১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট পক্ষগণকে অবহিত করে বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে রিপোর্ট দেয়ার জন্য এ দপ্তরের সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ সাইকুল ইসলামকে দায়িত্ব দেয়া হয়। দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা তদন্ত শেষে নথির মাধ্যমে জানান যে ইতোমধ্যে উত্থাপিত বিরোধটি জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন এর নেতৃবৃন্দ, ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এবং ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের মধ্যে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা ও মিমাংসা হয়েছে। মোঃ সাইকুল ইসলাম, সহকারী শ্রম পরিচালক উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। ইহা যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- আরটিইউ/৪৩৫/১৫/৫২৭, তারিখ-১৪/৭/১৬ খ্রিঃ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারীসহ সকল পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
15 ১১/২/১৫,ডাইরী নং-৫৯ ইভিন্স ড্রেস শার্টস লিঃ কর্তৃপক্ষর অসৎ শ্রম আচরণের বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসেঙ্গ। ইভিন্স ড্রেস শার্টস লিঃ, প্লট নং-৩৩, সেকশন- ৭, মিরপুর, ঢাকা-১২১৬। মোছাঃ জাহানারা, সভাপতি, ইভিন্স ড্রেস শার্টস লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন (প্রস্তাবিত), উত্তর তেজকুনিপাড়া, তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫। অভিযোগ প্রাপ্তির পর কারখানা কর্তৃপক্ষকে টেলিফোনিক নির্দেশনা দেয়া হয় বিষয়টি মিমাংসা করার জন্য। সর্বশেষ ১০/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ সরেজমিন তদন্ত করা হয়। সরেজমিনে তদন্তকালে কারখানা কর্তৃপক্ষ মৌখিক /লিখিতভাবে জানান অভিযোগকারী মোছাঃ জাহানারা চাকুরী হতে অব্যাহতি নিয়ে সমুদয় পাওনা বুঝে নিয়ে না দাবী সনদপত্রে স্বাক্ষর করেছেন (কপি সংযুক্ত)। মোঃ আবু হাসানাত, সহকারী শ্রম পরিচালক উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। ইহা যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- যুশ্রপ/২১৩/১৪/৫৬, তারিখ-১৮/১/১৬ খ্রিঃ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারীসহ সকল পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
16 ১৭/৬/১৫, ডাইরী নং-১৭৪৭ ১৯/৫/১৬, ডাইরী নং-১৩৯১ মালিক পক্ষ কর্তৃক অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগঃ ১। চাকরীচ্যুতির হুমকি, ২। কাজে যোগদান থেকে বিরত রাখা, ৩। চাকরী ছেড়ে দিতে চাপ প্রয়োগ, ইত্যাদি। শ্রমিক ইউনিয়নের মুষ্টিমেয় শ্রমিক কর্তৃক কারখানায় বিশৃংখলা ও উৎপাদন কাজ বন্ধ রাখায় উক্ত ইউনিয়নের রেজিষ্ট্রেশন বাতিল প্রসঙ্গে। জিন্স কেয়ার লিঃ, ৩৪৮/বি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮। ১। মোঃ মোস্তফা কামাল, ২। সালমা । যথাক্রমে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, জিন্স কেয়ার লিঃ সম্মিলিত শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজিনং-ঢাকা- ৪৮৯৯), ২। মোঃ শফিউল্লাহ, ব্যবস্থাপনা পরিচালক, জিন্স কেয়ার লিঃ, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮। ১। টেলিফোনের মাধ্যমে কর্তৃপক্ষকে শ্রম আইনের আলোকে ইউনিয়ন প্রতিনিধি ও সাধারণ সদস্যদের সাথে আইনানুগ আচরণের পরামর্শ দেয়া হয়। ২। উক্ত অভিযোগের বিষয়ে ব্যাখ্যা চেয়ে ইউনিয়ন বরাবর এ দপ্তর হতে ২৩/৬/১৬ খ্রিঃ তারিখে পত্র দেয়া হয়। মোঃ আলমুতাজিদুল ইসলাম, সহকারী শ্রম পরিচালক ০৯/০১/১৬ খ্রিঃ তারিখে তদন্তকারী কর্মকর্তা কর্তৃক সরেজমিন তদন্ত করা হয়। তদন্তকালে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক (অভিযোগকারী) এবং মালিকপক্ষর সাথে আলোচনা করে নিশ্চিত হওয়া গেছে যে, ইতিমধ্যে ২৭/০৬/১৫ খিঃ তারিখে মালিক ও শ্রমিক পক্ষর মধ্যে দ্বি-পাক্ষকে চুক্তি সম্পাদিত হয়েছে। চুক্তি সম্পাদনের পরে কোন পক্ষের আর কোন অভিযোগ নাই। ১৭/১/১৬ খ্রিঃ তারিখে পত্র নং-যুশ্রপ/ঢাকা/৪৮৯৯/৫৪, তারিখ-১৭/১/১৬ খ্রিঃ মাধ্যমে অভিযোগকারী ও ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এবং শ্রম পরিচালককে নিষ্পত্তির বিষয়টি জানানো হয়। নিষ্পত্তি
17 ০৪/৫/১৫ ডাইরী নং ১২৩৮ ড্রেস এন্ড ডিসমেটিক শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা-৪৮৩০, ০৬ জন কর্মচারীকে বে-আইনীভাবে চাকুরীচ্যুত প্রসঙ্গে। ড্রেস এন্ড ডিসমেটিক (প্রাঃ) লিঃ, ১১০১, ডিআইটি রোড, মালিবাগ, চৌধুরীপাড়া, ঢাকা-১২১৯। ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ মোট ০৬ জন, ড্রেস এন্ড ডিসমেটিক শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা-৪৮৩০, বাড়ী নং-৪৪৬ (নীচতলা), পশ্চিম রামপুরা, ঢাকা-১২১৯। অসৎ শ্রম আচরণের বিষয়ে যুশ্রপ/ঢাকা-৪৮৩০/৪৫/১(২) , ১৩/০১/১৬ খ্রিঃ তারিখের পত্রের মাধ্যমে ২১/১/১৬ খ্রিঃ তারিখ সরেজমিন তদন্তের জন্য পত্র দেয়া হয়। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কর্তৃক প্রেরিত ১৪/২/১৬ খ্রিঃ তারিখের মাধ্যমে কাজে যোগদান করেছেন। জানান যে, ১৫/১২/১৫ খ্রিঃ তারিখ এ্যাকর্ডের মধ্যস্থতায় যাবতীয় পাওনাদি পাওনা সহকারে শ্রমিকগন অভিযোগটি পুনরায় সরেজমিনে তদন্ত করার জন্য এ দপ্তরের উপ-শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ জিয়াউল হক খানকে আহবায়ক এবং সহকারী শ্রম পরিচালক মোঃ শফিকুল ইসলামকে সদস্য করে আগামী ২৪/৭/১৬ খ্রিঃ তারিখ কারখানা এবং ইউনিয়ন অফিসে উপস্থিত হয়ে সরেজমিন তদন্ত করার জন্য পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫০৩৬/ ৫৩৪, ১৬/৭/১৬ খ্রিঃ তারিখের পত্রের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে অবহিত করা হয়। তদন্ত প্রতিবেদনে দেখা যায় যে কারখান কর্তৃপক্ষ তার ভূল বুঝতে পেরে চাকুরীচ্যুত ০৯ জন শ্রমিককে চাকুরীতে পূর্ণবহালসহ পেছনের সকল পাওনাদি পরিশোধ করেছে এবং শ্রমিকপক্ষের বিরুদ্ধে তার সকল অভিযোগ প্রত্যাহার করেছে। সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ আলমুতাজিদুল ইসলাম পত্র নং- আরটিইউ/ঢাকা-৪৮৩০/৬০১, তারিখ- ০১/৮/১৬ খ্রিঃ মাধ্যমে নিষ্পত্তির বিষয়টি সংশ্লিষ্ট সকলকে অবহিত করা হয়। নিষ্পত্তি
18 ০৮/৭/১৫ডাইরী নং- ১০৭৪ চুনজি নীট লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা-৫০০২ এর শ্রমিকদেরকে অসৎ শ্রম আচরণ সংক্রান্ত ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসেঙ্গ। কর্তৃপক্ষের চুনজি নীট লিঃ, ৮১/৮২, সাতারকুল রোড, উত্তর বাড্ডা, বাড্ডা, ঢাকা-১২১২। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, চুনজি নীট লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা-৫০০২, ২৩ তোপখানা রোড (৩য়তলা), শাহবাগ, ঢাকা। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং যুশ্রম/ঢাকা-৫০০২/৫৮৩, তারিখ: ১১/৮/১৫ এর মাধ্যমে একজন কর্মকর্তাকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তা প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন অভিযোগকারী শ্রমিকগন ও সাধারণ সমস্যদের সাথে কথা বলে জানা যায় অভিযোগের বিষয়ে মিমাংসা হয়েছে এ বিষয়ে কোন অসমেত্মাষ নেই। পরবর্তীতে আএলও কর্তৃক প্রেরিত অভিযোগের মধ্যে উল্লেখিত অভিযোগটি বিদ্যমান থাকায় এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫০০২/৫৩৬, তারিখঃ ১৬/৭/২০১৬ এর মাধ্যমে একটি পুন তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ আলমুতাজিদুল ইসলাম তদন্তকারী কর্মকর্তাদ্বয় প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন চুনজি নীট লিঃ এর মালিকের বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরনের অভিযোগের বিষয়ে বর্তমান সভাপতি মোঃ ইউনুস আলী এবং সা: সম্পাদক মোসাঃ পপি আক্তারের বক্তব্য গ্রহণ করা হয়। উক্ত বক্তব্যে গত ৮/৭/১৫ খ্রি. তারিখে মালিকের বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগের বিষয়টি ১৯/৫/১৬ তারিখে সমঝোতার মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয়েছে মর্মে অভিযোগকারীগন জানিয়েছেন। আইটিইউসি কর্তৃক আইএলও এর নিকট দাখিলকৃত অভিযোগের বিষয়ে তাদের কোন অভিযোগ নেই। চুনজি নীট লি: এর ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ এবং ইউনিয়নের মধ্যে গত ২/৮/১৬ তারিখে আপোষনামা স্বাক্ষরিত হয়। অভিযোগকারী শ্রমিক পক্ষের সাথে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষেরঅভিযোগের বিষয়টি নিষ্পত্তি হওয়ায় ইহা এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫০০২/১০৬৪/১(৩) এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট পক্ষগনকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
19 ০৭/০১/১৬ডাইরী নং ৪৪ পোলষ্টার ফ্যাশন লিঃ এর মালিক পক্ষ কর্তৃক অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগঃ ১। ইউনিয়নের আবেদন করার কারণে ০২ জন শ্রমিককে মারধর, গালাগালি ও জোরপূর্বক সাদা কাগজে স্বাক্ষর রেখে চাকুরী হতে অব্যাহতি। ২। পাওনাদি পরিশোধ না করা। পোলষ্টার ফ্যাশন লিঃ, ৩২২/১, উত্তর গোড়ান, ঢাকা-১২১৯। ১। লিলি বেগম, অপারেটর, কার্ড নং-১০৮২, ২। লাইজু, অপারেটর, কার্ড নং-১০৫৪। ১। ১০/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখে এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ-৪৯৪৮/২২ এর প্রেক্ষিতে সরেজমিনে তদন্ত করে দেখা যায় যে, গত ০৪/১২/২০১৪ খ্রিঃ তারিখে শ্রমিকপক্ষ ও মালিকপক্ষের মধ্যে একটি আপোষনামা সম্পাদিত হয়। অতঃপর অভিযোগের কারণ আর বিদ্যমান নাই মর্মে অভিযোগকারীগণ লিখিতভাবে জানান যা পত্র নং আরটিইউ/১২৬/ ১৪/৮৪৩, তারিখ- ২২/১২/১৪ খ্রিঃ মাধ্যমে অত্র দপ্তর হতে শ্রম পরিচালক মহোদয়কে অবহিত করা হয়। মুহাম্মদ রকিবুল হাসান, শ্রম কর্মকর্তা ০৭/১/১৬ খ্রিঃ তারিখে লাইজু-সভাপতি এবং লিলি-সাধারণ সম্পাদক কর্তৃক ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষেরবিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ পাওয়া যায়। উক্ত অভিযোগের প্রেক্ষিতে পত্র নং-আরটিইউ/ঢাকা-৪৯৪৮/২২, তারিখ-০৭/১/১৬ খ্রিঃ মাধ্যমে এ দপ্তরের শ্রম কর্মকর্তা জনাব মুহাম্মদ রকিবুল হাসানকে ১০/১/১৬ খ্রিঃ তারিখ তদন্তের জন্য পত্র দেয়া হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন যে, মালিকপক্ষ এবং শ্রমিকপক্ষের মধ্যে একটি আপোষনামা চুক্তি সম্পাদিত হয়। দাখিলকৃত অভিযোগসমূহ প্রত্যাহার করায় এবং সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক চাকুরী থেকে ইস্তফা দেওয়ায় অভিযোগের বিষয়টি নিষ্পত্তি হওয়ায় পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৪৯৪৮/৫৫, তারিখ ১৮/১/১৬ খ্রিঃ মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে অবহিত করা হয়। নিষ্পত্তি
20 1900-01-07 00:00:00 পেনাসিয়া ক্লোথিং লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা-৫০৬০ এর মেহেদী হাসান, সভাপতি, রুহুল আমিন, সহ- সভাপতি, মোসাঃ আসমা বেগম, সাধারণ সম্পাদককে মৌখিকভাবে চাকরী হতে টার্মিনেট করার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ। পেনাসিয়া ক্লোথিং লিঃ, আজিজ চৌধুরী কমপ্লেক্স -২, ভোগড়া, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর। মেহেদী হাসান, সভাপতি, রুহুল আমিন, সহ- সভাপতি, মোসাঃ আসমা বেগম, সাধারণ সম্পাদক, পেনাসিয়া ক্লোথিং লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা-৫০৬০। অভিযোগের বিষয়ে ইউনিয়ন অফিস এবং কারখানা সরেজমিনে তদন্তের জন্য ০৭/১/২০১৬ তারিখে যুগ্ম শ্রম পরিচালক অফিস ঢাকা হতে পত্র প্রেরণ করা হয়। সংশ্লিষ্ট সহকারী শ্রম পরিচালক ১০/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখে সরেজমিনে তদন্ত করে ১১/১/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ প্রতিবেদন দাখিল করেন। তদন্তকালীন সময়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ জানায় অভিযোগকারী শ্রমিকগণ চাকুরী হতে স্বেচ্ছায় অব্যাহিত নিয়ে সকল পাওনাদি বুঝে নিয়েছেন। মোঃ শফিকুল ইসলাম, সহকারী শ্রম পরিচালক, আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর, টঙ্গী, গাজীপুর। ০৭/১/১৬ খ্রিঃ তারিখে সভাপতি, জনাব মেহেদী হাসান, সভ-সভাপতি, জনাব রম্নহুল আমিন, সাধারণ সম্পাদক, জনাব মোসাঃ আসমা বেগম কর্তৃক ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষেরবিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ পাওয়া যায়। উক্ত অভিযোগের প্রেক্ষিতে পত্র নং- আরটিইউ/ঢাকা-৫০৬০/২৮, তারিখ-০৭/১/১৬ খ্রিঃ মাধ্যমে আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর,টঙ্গী, গাজীপুর এর সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ শফিকুল ইসলামকে ১০/১/১৬ খ্রিঃ তারিখ তদন্তের জন্য পত্র দেয়া হয়। কারখানা কর্তৃপক্ষ অভিযোগকারী সকল শ্রমিককে আইনানুগ পাওনাদি পরিশোধ করে বিষয়টি সমঝোতার মাধ্যমে নিষ্পত্তি করেছেন মর্মে তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয় এবং পত্র নং আরটিইউ/ ঢাকা-৫০৬০/৫২৪, ১৩/৭/১৬ খ্রিঃ তারিখের পত্রের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে অবহিত করা হয়। নিষ্পত্তি
21 ডাইরী নং- ২৪৫৮, তারিখ-২৬/১/১৬ কারখানার শ্রমিকদেরকে অত্যাচার, নির্যাতন, হয়রানি করার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। জেসিস এ্যাপারেলস লিঃ, ২২৭ নিউ, ৩৩১ পুরাতন, আউটার সার্কুলার রোড, বড় বগবাজার, ঢাকা-১২১৭। নুপুর আক্তার, সভাপতি ও মাকসুদা আক্তার, সাধারণ সম্পাদক জেসিস এ্যাপারেলস লিঃ সম্মিলিত শ্রমিক ইউনিয়ন রেজি নং ঢাকা ৫০৩৪, এইচ-৬১/১ (৪র্থ), নিউ এয়ারপোর্ট রোড, আমতলী, মহাখালী, ঢাকা। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫০৩৪/২৮৪৬, তা: ৯/৮/১৬ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষেরনিকট লিখিত জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ২৪/৮/১৬ তারিখে পত্রের জবাব প্রদান করেন। জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করার জন্য এ দপ্তরের উপশ্রম পরিচালক জনাব মোঃ জিয়াউল হক খানকে আহবায়ক এবং সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন খানকে সদস্য করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটি কর্তৃক ৬/৯/১৬ তারিখে তদন্ত করা হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তাদ্বয়ের প্রতিবেদন মোতাবেক দেখা যায় কারখানায় শ্রমিকদের জন্য বিশুদ্ধ খাবার পানির ব্যবস্থা এবং প্রশ্রাব ও পায়খানার টয়লেটের সংখ্যা বৃদ্ধি এবং ভয়ভীতির বিষয়টি নিয়ে যে অভিযোগ করা হয় বর্তমানে তার সমাধান হয়েছে। ট্রেড ইউনিয়ন করার কারণে কর্তৃপক্ষের যে বিরুপ মনোভাব ছিল বর্তমানে যে মনোভাবের পরিবর্তন ঘটেছে। কারখানার উৎপাদন স্বাভাবিক রয়েছে এবং শ্রমিকদের মধ্যে কোন অভিযোগ নেই। উভয় পক্ষ ভবিষ্যতে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে কর্মক্ষেত্রে শান্তি ও সহবস্থান বজায় রাখবেন বলে অঙ্গীকার করা হয়েছে। জনাব মোঃ জিয়াউল হক খান, উপ শ্রম পরিচালক এবং জনাব মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন খান সহকারী শ্রম পরিচালক অভিযোগটি নিষ্পত্তি হওয়ায় ইহা এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫১২৫/১০৭৩/১(৪) এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট পক্ষগনকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
22 ডাইরী নং-৩৬০ সুপার শাইন এ্যাপারেলস লিঃ এর ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ পাওয়া যায়। সুপার শাইন এ্যাপারেলস লিঃ, ১/১ পশ্চিম হাজীপাড়া, ডি আইটি রোড, মালিবাগ, চৌধুরীপাড়া, ঢাকা-১২১৯। কল্পনা, সভাপতি, সুপার শাইন এ্যাপারেলস শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজিনং-ঢাকা-৪৮৬২, বাড়ী নং-৪৪৬ (নীচতলা) পশ্চিম রামপুরা, ঢাকা- ১২১৯। পত্র নং-যুশ্রপ/ঢাকা -৪৮৬৪/৪৪ তারিখ ১৩/১/১৬ খ্রিঃ এর মাধ্যমে ২১/১/১৬ খ্রিঃ তারিখে সরেজমিনে তদন্ত করার জন্য পত্র প্রদান করা হয়। তদন্ত কর্মকর্তার প্রতিবেদন অনুযায়ী দেখা যায় কর্তৃপক্ষ ১৪/২/১৫ খ্রি. তারিখে বেগম কল্পনাকে সাময়িক কর্মচ্যুতিসহ কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করা হয় এবং বাংলাদেশ শ্রম আইন, ২০০৬ এর ধারা ২৩ (ক) মতে অর্থাৎ শ্রম আচরনের আওতায় পরে মর্মে উল্লেখ করেন। কিন্তু নোটিশের অভিযোগ সুনির্দিষ্ট নয়। কল্পনা আক্তারকে শ্রম আইনের ২৩ (৪) (ক) ধারা অভিযুক্ত করা হলেও অভিযোগের কপি দেয়অ হয়েছে মর্মে কোন তথ্য উপস্থাপন করতে পারেননি এবং ঢাডাওভাবে কিছু সাধারণ নেতিবাচক কথা বলে কারণ দর্শানো নোটিশ জারী করা হয় যা শ্রম আইনের ২৪ (১) (খ) ধারার লংঘন। যেহেতু বর্ণিত বিষয়টি কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের এখতিয়ার ভূক্ত সেহেতু প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণের লক্ষ্য তদন্ত প্রতিবেদন সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তরে প্রেরণের জন্য শ্রম পরিচালককে অনুরোধ করা হয়। সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ আলমুতাজিদুল ইসলাম। বিষয়টি এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৪৮৬৪/৬১৬, তারিখ: ২/৮/১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
23 ডাইরী নং-৩৬২, তারিখ-১০/২/১৬ শ্রম আইন লংঘন ও অভিযোগ প্রসঙ্গে। ষ্টাইল ফ্যাশন লিঃ, ১/১, পশ্চিম রামপুরা, ঢাকা-১২১৯। রুমা, সভাপতি, ষ্টাইল ফ্যাশন শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজিনং- ঢাকা-৪৮২৮, বাড়ী নং-৪৪৬ (নীচতলা) পশ্চিম রামপুরা, ঢাকা- ১২১৯। পত্র নং-যুশ্রপ/ঢাকা -৪৮২৮/১৮২, তারিখ ১৩/৩/১৬ খ্রিঃ পত্রের মাধ্যমে ০৭/৩/১৬ খ্রিঃ তারিখে সরেজমিনে তদন্ত করার জন্য পত্র প্রদান করা হয়। কর্মকর্তাদ্বয় প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন শ্রমিকদেরকে আইনসংগতভাবে নির্ধারিত হারের চেয়ে কম হারে মজুরী প্রদান করা হয় এবং যথাসময়ের মধ্যে তা পরিশোধ করা হয় না। কারখানার নিরাপত্তার বিষয়গুলোরও যথাযথভাবে প্রতিপালন করা হয় না বিধায় শ্রমিকরা আতঙ্কের মধ্যে কাজ করতে বাধ্য হন। কারখানার মিডলেবেল কর্মকর্তাগন শ্রমিকদের সাথে অশোভন আচড়ন করে থাকেন, যা আইনসঙ্গত নয়। উপ শ্রম পরিচালক, মোঃ জিয়াউল হক খান, ও সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ আলমুতাজিদুল ইসলাম। পত্র নং-আরটিইউ/ঢাকা-৪৮২৮/৬৩৩, তারিখ- ০৩/৮/১৬ খ্রিঃ মাধ্যমে শিল্পে শান্তি ও সামগ্রিক উৎপাদনের স্বার্থে শ্রমিকদের সাথে অশোভন আচরণ পরিহার করে আইনানুগ এবং শোভন আচরণ করার জন্য ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে পত্র দিয়ে নিষ্পত্তি করা হয়। নিষ্পত্তি
24 ডাইরী নং- ৩৬০, তারিখ-১০/২/১৬ ১০/২/১৬ খ্রিঃ তারিখ এ দপ্তরে স্বপা রানী, কোষাধ্যক্ষ, ডিসেন্ট এ্যাটায়ারস শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, (রেজিনং-ঢাকা-৫০৬৭) কর্তৃক ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগ পাওয়া যায়। ডিসেন্ট এ্যাটায়ারস লিঃ, ক-৬৩/১, কুরিল চৌরাস্তা, ভাটার, ঢাকা। স্বপা রানী, কোষাধ্যক্ষ, ডিসেন্ট এ্যাটায়ারস শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, (রেজিনং-ঢাকা-৫০৬৭),ক-২২২, কুড়িল বিশ্বরোড, বাড্ডা, ঢাকা-১২১৯। পত্র নং-আরটিইউ/ঢাকা /৫০৬৭/১৫/১৮১, তারিখ ০৩/৩/২০১৬ এর মাধ্যমে ০৭/৩/১৬ খ্রিঃ তারিখের মধ্যে মতামত প্রদানের জন্য ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষকে পত্র প্রেরণ করা হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক কোন জবাব না পাওয়ায় পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫০৬৭/২৫৭, তারিখ: ৩/৪/১৬ এর মাধ্যমে কর্তৃপক্ষকে অবগত করে ৬/৪/১৬ তারিখে দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা তদন্ত করেন। সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ আলমুতাজিদুল ইসলাম। কর্মকর্তার প্রতিবেদনে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক বাংলাদেশ শ্রম আইন, ২০০৬ এর ধারা ২৩ ও ২৪ লংঘিত হয়েছে মর্মে উল্লেখ করেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়টি কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের আইনানুগভাবে নিষ্পত্তির ক্ষমতা রয়েছে। ইহা এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫০৬৭/৩৩১, তা: ২৮/৪/১৬ এর মাধ্যমে উক্ত দপ্তরে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণের জন্য পত্র দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
25 ১/৩/২০১৬, ৫৫০ প্যানারোমা এ্যাপারেলস লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন (প্রস্তাবিত), সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ০৫ জন সদস্যকে চাকুরীচ্যুতি প্রসঙ্গে। প্যানারোমা এ্যাপারেলস লিঃ, ভোগড়া, বাইপাস সড়ক, গাজীপুর। মোঃ জাকির হোসেন, সভাপতিসহ মোট ০৫ জন, শাউন সুপার মার্কেট বাসন সড়ক, জয়দেবপুর, গাজীপুর। প্রস্তাবিত ইউনিয়ন কর্তৃক গত ০১/৩/১৬ খ্রিঃ তারিখে উত্থাপিত অসৎ শ্রম আচরণ (এন্টি ইউনিয়ন ডিসক্রিমিনেশন) সর্ম্পকিত অভিযোগটি অত্র দপ্তরে পাওয়ার পর আইনের বিধানাবলী স্মরণ করিয়ে এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৭৯০২০১৬/১৭৫, তারিখ ০৩/৩/১৬ এর মাধ্যমে কারখানা কর্তৃপক্ষেরনিকট লিখিত জবাব চাওয়া হয়। কারখানা কর্তৃপক্ষ ০৮/৩/১৬ তারিখে অত্র দপ্তরে লিখিত জবাব প্রদান করেন। উল্লেখিত বিষয়টির উপর হালনাগাদ প্রতিবেদন দেয়ার জন্য এ দপ্তরের পত্র নং- আরটিইউ/ ৭৯০/২০১৬/১৬৫৩ (সি) এর মাধ্যমে আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর, টঙ্গী, গাজীপুর এর সহকারী শ্রম পরিচালক, জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম এবং এ দপ্তরের সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ সাইকুল ইসলামকে বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে রিপোর্ট দেয়ার জন্য দায়িত্ব প্রদান করা হয়। জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম, সহকারী শ্রম পরিচালক তদন্ত কর্মকর্তাদ্বয়ের রিপোর্ট অনুযায়ী প্রতীয়মান হয় যে, ০৫ জন শ্রমিক সেচ্ছায় চাকুরী ছেড়ে চলে যায় এবং প্রত্যেকে কারখানা কর্তৃপক্ষ থেকে আইনানুগ পাওনাদি গ্রহন করেছেন (কপি সংযুক্ত)। কমৃকর্তাগণ অরো জানান যে, অভিযোগকারী জনাব মোঃ জাকির হোসেন এবং মোঃ বাচ্চু মিয়া ইতোমধ্যে মাসট্রেড ইন্টারন্যশনাল গার্মেন্টস এ গত ০১/০৩/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ থেকে কর্মরত রয়েছেন। অভিযোগকারীগণ সকলেই আইনানুগ পাওনাদি গ্রহণ করায় এবং অন্য কারখানায় কর্মরত থাকায় উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। ইহা যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- আরটিইউ/ ৭৯০/২০১৬/২১০, তারিখ-১৩/০৩/২০১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারী সহ পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। ১৯/৪/১৬ তারিখের এক পত্রের মাধ্যমে অভিযোগকারী মোঃ জাকির হোসেনসহ ০৫ জনের অভিযোগের বিষয়ে অত্র দপ্তরের ১৩/৩/১৬ তারিখের নিষ্পত্তিকৃত পত্রের প্রাপ্তি স্বীকার দিয়েছেন। প্রাপ্তি স্বীাকার পত্রে ০১/৩/১৬ তারিখের অভিযোগ পত্রটির প্রত্যাহারের নিবেদন এবং তারা নিয়মিত অনুসরণ পূর্বক আইনানুগ সকল পাওনাদি বুঝে নিয়ে স্বেচ্ছায় চাকুরী হতে অব্যাহতি নিয়ে অন্য কারখানায় চাকুরীরত আছেন মর্মে মতামত ব্যক্ত করেন। অভিযোগের বিষয়ে তাদের আর কোন আপত্তি বা অনুযোগ নেই মর্মে উল্লেখ করেন। ইহা যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- আরটিইউ/৭৯০/২০১৬/২১০,তারিখ-১৩/০৩/২০১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারীসহ পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
26 ১/৩/২০১৬, ৫৫১ প্যানারোমা এ্যাপারেলস লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন (প্রস্তাবিত), সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ০৫ জন সদস্যকে চাকুরীচ্যুতি প্রসঙ্গে। প্যানারোমা এ্যাপারেলস লিঃ, ভোগড়া, বাইপাস সড়ক, গাজীপুর। মোঃ জাকির হোসেন, সভাপতিসহ মোট ০৫ জন, শাউন সুপার মার্কেট বাসন সড়ক, জয়দেবপুর, গাজীপুর। প্রস্তাবিত ইউনিয়ন কর্তৃক গত ০১/৩/১৬ খ্রিঃ তারিখে উত্থাপিত অসৎ শ্রম আচরণ (এন্টি ইউনিয়ন ডিসক্রিমিনেশন) সর্ম্পকিত অভিযোগটি অত্র দপ্তরে পাওয়ার পর আইনের বিধানাবলী স্মরণ করিয়ে এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৭৯০২০১৬/১৭৫, তারিখ ০৩/৩/১৬ এর মাধ্যমে কারখানা কর্তৃপক্ষেরনিকট লিখিত জবাব চাওয়া হয়। কারখানা কর্তৃপক্ষ ০৮/৩/১৬ তারিখে অত্র দপ্তরে লিখিত জবাব প্রদান করেন। উল্লেখিত বিষয়টির উপর হালনাগাদ প্রতিবেদন দেয়ার জন্য এ দপ্তরের পত্র নং- আরটিইউ/ ৭৯০/২০১৬/১৬৫৩ (সি) এর মাধ্যমে আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর, টঙ্গী, গাজীপুর এর সহকারী শ্রম পরিচালক, জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম এবং এ দপ্তরের সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ সাইকুল ইসলামকে বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে রিপোর্ট দেয়ার জন্য দায়িত্ব প্রদান করা হয়। জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম, সহকারী শ্রম পরিচালক তদন্ত কর্মকর্তাদ্বয়ের রিপোর্ট অনুযায়ী প্রতীয়মান হয় যে, ০৫ জন শ্রমিক সেচ্ছায় চাকুরী ছেড়ে চলে যায় এবং প্রত্যেকে কারখানা কর্তৃপক্ষ থেকে আইনানুগ পাওনাদি গ্রহন করেছেন (কপি সংযুক্ত)। কমৃকর্তাগণ অরো জানান যে, অভিযোগকারী জনাব মোঃ জাকির হোসেন এবং মোঃ বাচ্চু মিয়া ইতোমধ্যে মাসট্রেড ইন্টারন্যশনাল গার্মেন্টস এ গত ০১/০৩/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ থেকে কর্মরত রয়েছেন। অভিযোগকারীগণ সকলেই আইনানুগ পাওনাদি গ্রহণ করায় এবং অন্য কারখানায় কর্মরত থাকায় উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। ইহা যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- আরটিইউ/ ৭৯০/২০১৬/২১০, তারিখ-১৩/০৩/২০১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারী সহ পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। ১৯/৪/১৬ তারিখের এক পত্রের মাধ্যমে অভিযোগকারী মোঃ জাকির হোসেনসহ ০৫ জনের অভিযোগের বিষয়ে অত্র দপ্তরের ১৩/৩/১৬ তারিখের নিষ্পত্তিকৃত পত্রের প্রাপ্তি স্বীকার দিয়েছেন। প্রাপ্তি স্বীাকার পত্রে ০১/৩/১৬ তারিখের অভিযোগ পত্রটির প্রত্যাহারের নিবেদন এবং তারা নিয়মিত অনুসরণ পূর্বক আইনানুগ সকল পাওনাদি বুঝে নিয়ে স্বেচ্ছায় চাকুরী হতে অব্যাহতি নিয়ে অন্য কারখানায় চাকুরীরত আছেন মর্মে মতামত ব্যক্ত করেন। অভিযোগের বিষয়ে তাদের আর কোন আপত্তি বা অনুযোগ নেই মর্মে উল্লেখ করেন। ইহা যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- আরটিইউ/৭৯০/২০১৬/২১০,তারিখ-১৩/০৩/২০১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারীসহ পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
27 ১/৩/২০১৬, ৫৫২ প্যানারোমা এ্যাপারেলস লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন (প্রস্তাবিত), সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ০৫ জন সদস্যকে চাকুরীচ্যুতি প্রসঙ্গে। প্যানারোমা এ্যাপারেলস লিঃ, ভোগড়া, বাইপাস সড়ক, গাজীপুর। মোঃ জাকির হোসেন, সভাপতিসহ মোট ০৫ জন, শাউন সুপার মার্কেট বাসন সড়ক, জয়দেবপুর, গাজীপুর। প্রস্তাবিত ইউনিয়ন কর্তৃক গত ০১/৩/১৬ খ্রিঃ তারিখে উত্থাপিত অসৎ শ্রম আচরণ (এন্টি ইউনিয়ন ডিসক্রিমিনেশন) সর্ম্পকিত অভিযোগটি অত্র দপ্তরে পাওয়ার পর আইনের বিধানাবলী স্মরণ করিয়ে এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৭৯০২০১৬/১৭৫, তারিখ ০৩/৩/১৬ এর মাধ্যমে কারখানা কর্তৃপক্ষেরনিকট লিখিত জবাব চাওয়া হয়। কারখানা কর্তৃপক্ষ ০৮/৩/১৬ তারিখে অত্র দপ্তরে লিখিত জবাব প্রদান করেন। উল্লেখিত বিষয়টির উপর হালনাগাদ প্রতিবেদন দেয়ার জন্য এ দপ্তরের পত্র নং- আরটিইউ/ ৭৯০/২০১৬/১৬৫৩ (সি) এর মাধ্যমে আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর, টঙ্গী, গাজীপুর এর সহকারী শ্রম পরিচালক, জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম এবং এ দপ্তরের সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ সাইকুল ইসলামকে বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে রিপোর্ট দেয়ার জন্য দায়িত্ব প্রদান করা হয়। জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম, সহকারী শ্রম পরিচালক তদন্ত কর্মকর্তাদ্বয়ের রিপোর্ট অনুযায়ী প্রতীয়মান হয় যে, ০৫ জন শ্রমিক সেচ্ছায় চাকুরী ছেড়ে চলে যায় এবং প্রত্যেকে কারখানা কর্তৃপক্ষ থেকে আইনানুগ পাওনাদি গ্রহন করেছেন (কপি সংযুক্ত)। কমৃকর্তাগণ অরো জানান যে, অভিযোগকারী জনাব মোঃ জাকির হোসেন এবং মোঃ বাচ্চু মিয়া ইতোমধ্যে মাসট্রেড ইন্টারন্যশনাল গার্মেন্টস এ গত ০১/০৩/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ থেকে কর্মরত রয়েছেন। অভিযোগকারীগণ সকলেই আইনানুগ পাওনাদি গ্রহণ করায় এবং অন্য কারখানায় কর্মরত থাকায় উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। ইহা যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- আরটিইউ/ ৭৯০/২০১৬/২১০, তারিখ-১৩/০৩/২০১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারী সহ পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। ১৯/৪/১৬ তারিখের এক পত্রের মাধ্যমে অভিযোগকারী মোঃ জাকির হোসেনসহ ০৫ জনের অভিযোগের বিষয়ে অত্র দপ্তরের ১৩/৩/১৬ তারিখের নিষ্পত্তিকৃত পত্রের প্রাপ্তি স্বীকার দিয়েছেন। প্রাপ্তি স্বীাকার পত্রে ০১/৩/১৬ তারিখের অভিযোগ পত্রটির প্রত্যাহারের নিবেদন এবং তারা নিয়মিত অনুসরণ পূর্বক আইনানুগ সকল পাওনাদি বুঝে নিয়ে স্বেচ্ছায় চাকুরী হতে অব্যাহতি নিয়ে অন্য কারখানায় চাকুরীরত আছেন মর্মে মতামত ব্যক্ত করেন। অভিযোগের বিষয়ে তাদের আর কোন আপত্তি বা অনুযোগ নেই মর্মে উল্লেখ করেন। ইহা যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- আরটিইউ/৭৯০/২০১৬/২১০,তারিখ-১৩/০৩/২০১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারীসহ পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
28 ১/৩/২০১৬, ৫৫৩ প্যানারোমা এ্যাপারেলস লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন (প্রস্তাবিত), সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ০৫ জন সদস্যকে চাকুরীচ্যুতি প্রসঙ্গে। প্যানারোমা এ্যাপারেলস লিঃ, ভোগড়া, বাইপাস সড়ক, গাজীপুর। মোঃ জাকির হোসেন, সভাপতিসহ মোট ০৫ জন, শাউন সুপার মার্কেট বাসন সড়ক, জয়দেবপুর, গাজীপুর। প্রস্তাবিত ইউনিয়ন কর্তৃক গত ০১/৩/১৬ খ্রিঃ তারিখে উত্থাপিত অসৎ শ্রম আচরণ (এন্টি ইউনিয়ন ডিসক্রিমিনেশন) সর্ম্পকিত অভিযোগটি অত্র দপ্তরে পাওয়ার পর আইনের বিধানাবলী স্মরণ করিয়ে এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৭৯০২০১৬/১৭৫, তারিখ ০৩/৩/১৬ এর মাধ্যমে কারখানা কর্তৃপক্ষেরনিকট লিখিত জবাব চাওয়া হয়। কারখানা কর্তৃপক্ষ ০৮/৩/১৬ তারিখে অত্র দপ্তরে লিখিত জবাব প্রদান করেন। উল্লেখিত বিষয়টির উপর হালনাগাদ প্রতিবেদন দেয়ার জন্য এ দপ্তরের পত্র নং- আরটিইউ/ ৭৯০/২০১৬/১৬৫৩ (সি) এর মাধ্যমে আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর, টঙ্গী, গাজীপুর এর সহকারী শ্রম পরিচালক, জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম এবং এ দপ্তরের সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ সাইকুল ইসলামকে বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে রিপোর্ট দেয়ার জন্য দায়িত্ব প্রদান করা হয়। জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম, সহকারী শ্রম পরিচালক তদন্ত কর্মকর্তাদ্বয়ের রিপোর্ট অনুযায়ী প্রতীয়মান হয় যে, ০৫ জন শ্রমিক সেচ্ছায় চাকুরী ছেড়ে চলে যায় এবং প্রত্যেকে কারখানা কর্তৃপক্ষ থেকে আইনানুগ পাওনাদি গ্রহন করেছেন (কপি সংযুক্ত)। কমৃকর্তাগণ অরো জানান যে, অভিযোগকারী জনাব মোঃ জাকির হোসেন এবং মোঃ বাচ্চু মিয়া ইতোমধ্যে মাসট্রেড ইন্টারন্যশনাল গার্মেন্টস এ গত ০১/০৩/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ থেকে কর্মরত রয়েছেন। অভিযোগকারীগণ সকলেই আইনানুগ পাওনাদি গ্রহণ করায় এবং অন্য কারখানায় কর্মরত থাকায় উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। ইহা যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- আরটিইউ/ ৭৯০/২০১৬/২১০, তারিখ-১৩/০৩/২০১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারী সহ পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। ১৯/৪/১৬ তারিখের এক পত্রের মাধ্যমে অভিযোগকারী মোঃ জাকির হোসেনসহ ০৫ জনের অভিযোগের বিষয়ে অত্র দপ্তরের ১৩/৩/১৬ তারিখের নিষ্পত্তিকৃত পত্রের প্রাপ্তি স্বীকার দিয়েছেন। প্রাপ্তি স্বীাকার পত্রে ০১/৩/১৬ তারিখের অভিযোগ পত্রটির প্রত্যাহারের নিবেদন এবং তারা নিয়মিত অনুসরণ পূর্বক আইনানুগ সকল পাওনাদি বুঝে নিয়ে স্বেচ্ছায় চাকুরী হতে অব্যাহতি নিয়ে অন্য কারখানায় চাকুরীরত আছেন মর্মে মতামত ব্যক্ত করেন। অভিযোগের বিষয়ে তাদের আর কোন আপত্তি বা অনুযোগ নেই মর্মে উল্লেখ করেন। ইহা যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- আরটিইউ/৭৯০/২০১৬/২১০,তারিখ-১৩/০৩/২০১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারীসহ পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
29 ১/৩/২০১৬, ৫৫৪ প্যানারোমা এ্যাপারেলস লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন (প্রস্তাবিত), সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ০৫ জন সদস্যকে চাকুরীচ্যুতি প্রসঙ্গে। প্যানারোমা এ্যাপারেলস লিঃ, ভোগড়া, বাইপাস সড়ক, গাজীপুর। মোঃ জাকির হোসেন, সভাপতিসহ মোট ০৫ জন, শাউন সুপার মার্কেট বাসন সড়ক, জয়দেবপুর, গাজীপুর। প্রস্তাবিত ইউনিয়ন কর্তৃক গত ০১/৩/১৬ খ্রিঃ তারিখে উত্থাপিত অসৎ শ্রম আচরণ (এন্টি ইউনিয়ন ডিসক্রিমিনেশন) সর্ম্পকিত অভিযোগটি অত্র দপ্তরে পাওয়ার পর আইনের বিধানাবলী স্মরণ করিয়ে এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৭৯০২০১৬/১৭৫, তারিখ ০৩/৩/১৬ এর মাধ্যমে কারখানা কর্তৃপক্ষেরনিকট লিখিত জবাব চাওয়া হয়। কারখানা কর্তৃপক্ষ ০৮/৩/১৬ তারিখে অত্র দপ্তরে লিখিত জবাব প্রদান করেন। উল্লেখিত বিষয়টির উপর হালনাগাদ প্রতিবেদন দেয়ার জন্য এ দপ্তরের পত্র নং- আরটিইউ/ ৭৯০/২০১৬/১৬৫৩ (সি) এর মাধ্যমে আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর, টঙ্গী, গাজীপুর এর সহকারী শ্রম পরিচালক, জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম এবং এ দপ্তরের সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ সাইকুল ইসলামকে বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে রিপোর্ট দেয়ার জন্য দায়িত্ব প্রদান করা হয়। জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম, সহকারী শ্রম পরিচালক তদন্ত কর্মকর্তাদ্বয়ের রিপোর্ট অনুযায়ী প্রতীয়মান হয় যে, ০৫ জন শ্রমিক সেচ্ছায় চাকুরী ছেড়ে চলে যায় এবং প্রত্যেকে কারখানা কর্তৃপক্ষ থেকে আইনানুগ পাওনাদি গ্রহন করেছেন (কপি সংযুক্ত)। কমৃকর্তাগণ অরো জানান যে, অভিযোগকারী জনাব মোঃ জাকির হোসেন এবং মোঃ বাচ্চু মিয়া ইতোমধ্যে মাসট্রেড ইন্টারন্যশনাল গার্মেন্টস এ গত ০১/০৩/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ থেকে কর্মরত রয়েছেন। অভিযোগকারীগণ সকলেই আইনানুগ পাওনাদি গ্রহণ করায় এবং অন্য কারখানায় কর্মরত থাকায় উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। ইহা যুগ্ম শ্রম পরিচালকের পত্র নং- আরটিইউ/ ৭৯০/২০১৬/২১০, তারিখ-১৩/০৩/২০১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অভিযোগকারী সহ পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। ১৯/৪/১৬ তারিখের এক পত্রের মাধ্যমে অভিযোগকারী মোঃ জাকির হোসেনসহ ০৫ জনের অভিযোগের বিষয়ে অত্র দপ্তরের ১৩/৩/১৬ তারিখের নিষ্পত্তিকৃত পত্রের প্রাপ্তি স্বীকার দিয়েছেন। প্রাপ্তি স্বীাকার পত্রে ০১/৩/১৬ তারিখের অভিযোগ পত্রটির প্রত্যাহারের নিবেদন এবং তারা নিয়মিত অনুসরণ পূর্বক আইনানুগ সকল পাওনাদি বুঝে নিয়ে স্বেচ্ছায় চাকুরী হতে অব্যাহতি নিয়ে অন্য কারখানায় চাকুরীরত আছেন মর্মে মতামত ব্যক্ত করেন। অভিযোগের বিষয়ে তাদের আর কোন আপত্তি বা অনুযোগ নেই মর্মে উল্লেখ করেন। নিষ্পত্তি
30 ০৬/০৪/১৬, ডাইরী নং ৯৩৬ ট্রেড ইউনিয়নের কর্মকর্তাসহ ইউনিয়নের সদস্যদেরকে চাকুরীচ্যুতির প্রসঙ্গে। রোয়া ফ্যাশন লিঃ, মরিয়ম কমপেস্নক্স চৌধুরী বাড়ী, ভোগড়া, গাজীপুর-১৭০৪& মোঃ কামরম্নল হাসান- সাধারণ সম্পাদক, একতা গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন, বাড়ী নং-৫৪৭, রোড নং-৫, সেকশন-৭, মিরপুর, ঢাকা। অভিযোগের বিষয়টি আইনগত নিষ্পত্তির লক্ষ্যে সুস্পষ্ট মতামত প্রদানের জন্য ১৩/৪/১৬ খ্রিঃ তারিখে ব্যবস্থাপনা পরিচালক বরাবর এ দপ্তর হতে পত্র দেয়া হয়। অভিযোগটি সরেজমিনে তদন্ত করার জন্য এ দপ্তরের উপ-শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ জিয়াউল হক খানকে আহবায়ক এবং উপ শ্রম পরিচালক সালাহউদ্দীন মাহমুদকে সদস্য করে আগামী ২৩/৭/১৬ খ্রিঃ তারিখ কারখানা এবং ইউনিয়ন অফিসে উপস্থিত হয়ে সরেজমিন তদন্ত করবেন মর্মে পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৪৯৯২/ ৫০৮, ১১/৭ /১৬ খ্রিঃ তারিখ পত্র দেয়া হয়। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, অভিযোগকারী সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক তারা তাদের সকল পাওনাদি বুঝে নিয়ে কারখানা হতে স্বেচ্ছায় অন্যত্র চাকুরী নিয়ে চলে যায়। এছাড়া একতা গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ কামরম্নল হাসান তিনি তার অভিযোগটি প্রত্যাহার করে নেন। জনাব মোঃ জিয়াউল হক খান, উপ-শ্রম পরিচালক, সালাহউদ্দীন মাহমুদ, উপ শ্রম পরিচালক পত্র নং-আরটিইউ/ঢাকা/৪৯৯২/৬১৭, তারিখ- ০২/৮/১৬ খ্রিঃ মাধ্যমে নিষ্পত্তির বিষয়টি সংশ্লিষ্ট সকলকে অবহিত করা হয়। নিষ্পত্তি
31 ২০/০৪/১৬, ডাইরী নং- ১০৫৮ ইউনিয়নের কর্মকর্তাকে বে আইনীভাবে চাকুরীচ্যুতি প্রসঙ্গে। এ পস্নাস ইন্ডাঃ লিঃ, মিরপুর, ঢাকা। মোঃ সৌরভ আহমেদ, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক, এ পস্নাস ইন্ডাঃ লিঃ (ইউনিট-০২) শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজিনং-ঢাকা-৪৯৮৭) বাসা নং-৫৪৭, রোড নং-০৫, সেকশন-০৭, মিরপুর, ঢাকা। পত্র নং-আরটিইউ/ঢাকা-৪৯৮৭/৩২৫, ২৬/৪/২০১৬ খ্রিঃ তারিখের পত্রে ব্যবস্থাপনা পরিচালক, এ পস্নাস ইন্ডা লিঃ (ইউনিট-০২) বিষয়কে পত্র প্রাপ্তির ০৭ (সাত) মধ্যে সুষ্পষ্ট মতামত প্রদানের জন্য পত্র দেয়া হয়। অভিযোগকারী শ্রমিকদের কাজে যোগদানের বিষয়ে কোন জবাব ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ থেকে প্রদান না করায় এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ ঢাকা-৪৯৮৭/৫৪৩, তাঃ ১৭/৭/১৬ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তাদ্বয় তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন অভিযোগকারী সৌরভ আহমেদ কর্তৃক উক্ত কারখানায় কর্মরত মহিলা কর্মী মোসাঃ নিপন আক্তার, কার্ড নং-৩৭৩৬ কে জোরপূর্বক কারখানা হতে বের করে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে স্থানীয় পুলিশ গন্যমান্য ব্যক্তিদের হসত্মক্ষেপে বিষয়টির শান্তিপূর্ণ সমাধান হয়। কিন্তু ১১/২/১৬ তারিখ হতে অভিযোগকারী জনাব মোঃ সৌরভ আহমেদ অনুনোমোদিতভাবে কাজে উপস্থিত রয়েছেন। মোঃ জিয়াউল হক খান, উপ শ্রম পরিচালক এবং মোঃ আলমুতাজিদুল ইসলাম সহকারী শ্রম পরিচালক বিভাগীয় শ্রম দপ্তর, ঢাকা। পরবর্তীতে ০৪/৮/১৬ তারিখে একতা গার্মেণ্টস ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক জনাব কামরুল হাসান কর্তৃক অভিযোগের বিষয়টি মিমাংসা হয়েছে মর্মে এ দপ্তরকে লিখিতভাবে অবহিত করাসহ অভিযোগটি প্রত্যাহার করেন। অভিযোগটি মিমাংসা হওয়ায় অত্র দপ্তরের নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। যা এ দপ্তরের পত্র নং আরটি ইউ/ঢাকা-৪৯৮৭/৬৯৪, তারিখঃ ১৮/৮/১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট পক্ষগনকে জানানো হয়। নিষ্পত্তি
32 ২৮/৪/১৬, ডাইরী নং-১১৪৫ সভাপতি জাকির হোসেনকে বে আইনীভাবে চাকুরীচ্যুতি প্রসঙ্গে। ডিফোইন ডিজাইন প্রাঃ লিঃ, আশুলিয়া, সাভার, ঢাকা। মোঃ জাকির হোসেন, সভাপতি, ডিফোইন ডিজাইন প্রাঃ লিঃ শ্রমিক ইউনিয়ন রেজিনং-ঢাকা-(৪৮৯৬), ১৩৮, আশুলিয়া বাজার, মসজিদের পশ্চিম পার্শ্বে, আশুলিয়া, সাভার, ঢাকা। ব্যবস্থাপনা পরিচালককে পত্র নং-আরটিইউ/ঢাকা-৪৮৯৬/৩৩৯, তারিখ-০৩/৫/২০১৬ খ্রিঃ তারিখ আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে এ ধরণের কর্মকান্ড থেকে বিরত থাকাসহ জনাব মোঃ জাকির হোসেনকে কাজে যোগদানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়। ডেফোইন ডিজাইন কর্তৃক প্রেরিত ৩১/৫/২০১৬ খ্রিঃ তারিখের পত্রে চাকুরীচ্যুত ইউনিয়নের সভাপতি জনাব মোঃ জাকির হোসেনকে কাজে যোগদানের জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে মর্মে অত্র দপ্তরকে অবহিত করেছেন। জনাব জাকির হোসেন বর্ণিত প্রতিষ্ঠানে যোগদান করেছেন কি না তা পত্র প্রাপ্তির ০৭ (সাত) দিনের মধ্যে অত্র দপ্তরকে জানানোর জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল কিন্তু নির্দ্দিষ্ট সময়ের পর আরও ২০ (বিশ) দিন অতিক্রান্ত হলেও যোগদানের ব্যাপারে অত্র দপ্তরকে অবগত করা হয়নি। পত্র নং-আরটিইউ/ ঢাকা-৪৮৯৬/৫৭২, তারিখ- ২৪/৭/১৬ খ্রিঃ মাধ্যমে বর্ণিত বিষয়টি প্রতিষ্ঠান লেভেলে নিষ্পত্তি হয়েছে মর্মে প্রতীয়মান। ইহা সংশ্লিষ্ট সকলকে অবহিত করা হয়। নিষ্পত্তি
33 ০২/০৫/১৬, ডাইরী নং-১১৪৮ অসৎ শ্রম আচরণ সংক্রান্ত্রে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। বর্ণালী টেক্সটাইল এন্ড প্রিন্টিং ইন্ডাঃ (প্রাঃ) লিঃ, ২৮৫, হাজারীবাগ, গোদনাইল, নারায়নগঞ্জ। মোঃ হৃদয়, সাধারণ সম্পাদক, বর্ণালী টেক্সটাইল এন্ড প্রিন্টিং ইন্ডাঃ ডাইং শ্রমিক ইউনিয়ন (প্রস্তাবিত), কাজী ম্যানশন বালুর মাঠ সংলগ্ন, চাষাড়া, নারায়নগঞ্জ। পত্র নং-আরটিইউ/৮০৫/১৬ /১৭৩৪(সি), ০৩ /৫/২০১৬ খ্রিঃ তারিখের পত্রে ব্যবস্থাপনা পরিচালক, বর্ণালী টেক্সটাইল এন্ড প্রিন্টিং ইন্ডাঃ (প্রাঃ) লিমিটেডকে অভিযোগের বিষয়ে পত্র প্রাপ্তির ০৭ (সাত) মধ্যে সুষ্পষ্ট মতামত প্রদানের জন্য পত্র দেয়া হয়। পত্রে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ০৯ জনকে কাজে পুনবহালের জন্য অনুরোধ করা হয়। বর্ণালী টেক্সটাইল এন্ড প্রিন্টিং ইন্ডাঃ (প্রাঃ) লিমিটেড কর্তৃক প্রেরীত ১৬/৫/১৬ তারিখের পত্রে চাকুরীচ্যুত ইউনিয়নের সভাপতি শ্রী প্রদীপ চন্দ্র সরকার এবং সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ হৃদয়সহ মোট ০৯ জনকে কাজে পুনবহাল করেছেন মর্মে এ দপ্তরকে অবহিত করা হয়েছে। ইউনিয়ন কর্তৃক প্রেরিত ২৫/৭/১৬ খ্রিঃ তারিখের পত্রের মাধ্যমে চাকুরীচ্যুত কর্মকর্তারা চাকুরীতে পূর্নবহালের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। অভিযোগের বিষয়টি অত্র দপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। যা এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/ ঢাকা/৫১০৮/৫৮৩, তারিখ-২৭/৭/১৬ খ্রিঃ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে অবহিত করা হয়। নিষ্পত্তি
34 ১৮/৫/১৬, ডাইরী নং-১৩৬৮ ৭৫ জন শ্রমিককে সাময়িক বরখাস্তসহ কারণ দর্শানো নোটিশ প্রসঙ্গে। ক্লাক্সটন এ্যাপারেলস এন্ড টেক্সটাইল লিঃ, তারাব, রূপগঞ্জ, নারায়নগঞ্জ। হাসিনা গং, লিংকিং অপারেটর, কার্ডনং-৫৪৪৪১, জাকির নিটিং অপারেটর-৫, কার্ড নং- ৩৪১৮১,ক্লাক্সটন এ্যাপারেলস এন্ড টেক্সটাইল লিঃ, তারাব, রূপগঞ্জ, নারায়নগঞ্জ। শান্তিপূর্ণসহ অবস্থানসহ উৎপাদন অব্যাহত রাখার নিমিত্তে বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করে ২৪/৫/২০১৬ তারিখ সকাল ১০:০০ ঘটিকায় যুগ্ম শ্রম পরিচালকের কার্যালয়ে উপস্থিত থাকার জন্য আরটিইউ/৮০৬ /২০১৬/ ১৭৪৪, ১৯/৫/১৬ তারিখ পত্র দেয়া হয়। সে মোতাবেক ২৪/৫/২০১৬ তারিখে অনুষ্ঠিত সভায় কর্তৃপক্ষের উপস্থিত কর্মকর্তাবৃন্দ কর্তৃক ব্যবস্থাপনা পরিচালকের সাথে আলোচনা করে চাকুরীচ্যুত শ্রমিকদের পুনঃবহালের বিষয়টি জানানো হবে মর্মে সভায় অবহিত করা হয়। পরবর্তীতে চাকুরীচ্যুত শ্রমিকদের পুনঃবহালের বিষয়ে এ দপ্তরকে অবহিত না করায় অত্র দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/ঢাকা-৫০১৯/ ৪৬৭, তারিখঃ ২৬/৬/২০১৬ এর মাধ্যমে ৭৫ জন শ্রমিকের চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে কি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে তা ০৭ দিনের মধ্যে জানানোর জন্য ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করা হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক একটি তালিকার মাধ্যমে ৬৮ জনের বরখাস্তের একটি নোটিশ ১২/৭/১৬ তারিখে এ দপ্তরে প্রেরণ করা হয়। বর্ণিত নোটিশে বাংলাদেশ শ্রম আইন, ২০০৬ এর ধারা ২৩ (৪) (ছ) মোতাবেক বরখাস্ত করা হয়েছে মর্মে জানানো হয়। বিবিধ কার্যক্রম গ্রহণের প্রেক্ষিতে ০৭ জন শ্রমিককে পূর্ণবহাল করা হয় এবং অবশিষ্ট ৬৮ জনকে বহিষ্কার করা হয়। বহিষ্কৃত ৬৮ জন এর বিষয়টি বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ ধারা ২৩ ২৪ এ বর্ণিত পদ্ধতি অনুসরণ পূর্বক নিষ্পত্তি যোগ্য এবং নিয়োগ ও চাকুরীর শর্তাবলীর আওতাভুক্ত হওয়ায় তা নিষ্পত্তির আইনানুগ ক্ষমতা কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের। পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা/৫০১৯/৫২৩, তারিখ-১৩/৭/১৬ খ্রিঃ এর মাধ্যমে প্রয়োজনীয় আইনানুগ কার্যক্রম গ্রহণের নিমিত্ত কারখানা মহা পরিদর্শকের নিকট প্রেরণের জন্য শ্রম পরিচালক বরাবরে প্রাসঙ্গিক রেকর্ডপত্র প্রেরণ করে সংশ্লিষ্ট সকলকে অবহিত করা হয়েছে। নিষ্পত্তি
35 ১৯/৭/১৬, ডাইরী নং- ১৮৮৫ আমান সোয়েটার শ্রমিক- কর্মচারী ইউনিয়ন (প্রস্তাবিত), এর ১১ জন কর্মকর্তাকে বে- আইনীভাবে কাজে যোগদান হতে বিরত রাখার অভিযোগ প্রসঙ্গে। আমান সোয়েটার লিঃ, রাজাঘাট, রাজ ফুলবাড়িয়া, হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা-১৩৪০। মোঃ বাচ্চু শাহ, সভাপতি ও মোসাঃ ববিতা আক্তার, সাধারন সম্পাদক, আমান সোয়েটার শ্রমিক- কর্মচারী ইউনিয়ন (প্রস্তাবিত), আনসার আলী সুপার মার্কেট, হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা-১৩৪০। মোঃ বাচ্চু শাহ, সভাপতি ও মোসাঃ ববিতা আক্তার, সাধারন সম্পাদক, আমান সোয়েটার শ্রমিক- কর্মচারী ইউনিয়ন (প্রস্তাবিত), এর ১৯/৭/১৬ খ্রিঃ তারিখের অসৎ শ্রম আচরণের অভিযোগের বিষয়ে পত্র নং -আরটিইউ/৮১৯/১৬, তারিখ-২০/৭/১৬ খ্রিঃ মাধ্যমে অভিযোগের বিষয়ে পত্র প্রাপ্তির ০৭ দিনের মধ্যে মতামত প্রদানের জন্য ব্যবস্থাপনা পরিচালক বরাবর পত্র প্রেরণ করা হয়। কিন্তু দীর্ঘদিন অতি বাহিত হওয়ার পরও কোন মতামত প্রদান না করায় অত্র দপ্তর কর্তৃক ০২ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয় যার পত্র নং- আরটিইউঢাকা-৫১২৫/৭৫৮, তারিখ: ২০৯/১৬ খ্রি. মাধ্যমে সরেজমিন তদন্তের জন্য পত্র দেয়া হয়। তদন্তের দিন ০১/১০/১৬ খ্রি. তারিখ। সালাহউদ্দিন মাহমুদ তদন্তকারী কর্মকর্তাদ্বয়ের প্রতিবেদন অনুযায়ী চাকুরীচ্যুত শ্রমিকরা তাদের অবস্থান পরিবর্তন করে চাকুরীতে পুনঃ বহাল হওয়ার দাবী পরিত্যাগ করে আইনানুগ পাওনাদি পাওয়ার দাবী উত্থাপন করেছে। পাওনাদি সংক্রামত্ম সকল কার্যক্রম কল কারখানা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের এখতিয়ারভূক্ত সেহেতু প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণের লক্ষে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে অনুরোধ করা হয়। ইহা এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫১২৫/১০৫৫, তারিখ: ৬/১২/১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট পক্ষগনকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
36 ডাইরী নং ২৭৫৪, তারিখ-২১/৯/১৬ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক বে-আইনী কার্যকলাপ করার অভিযোগ প্রসঙ্গে। এমএসিকে শাটস লিঃ, ১৩৫-১৩৮, (৫ম তলা), আব্দুলস্নাহপুর, উত্তরা, ঢাকা জনাব আমিরম্নল হক আমিন, সভাপতি, জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন (রেজিঃ নং বি-১৯৯৭), ৩১/এফ, তোপখানা রোড, (নীচতলা), ঢাকা- ১০০০। এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/ঢাকা-৫১১৪/৭৮১, তারিখঃ ২৮/৯/১৬ এর মাধ্যমে সরেজমিনে তদন্ত করার জন্য একজন সহকারী শ্রম পরিচালককে দায়িত্ব প্রদান করা হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম, সহ শ্রম পরিচালক অভিযোগকারী জনাব মোঃ আমিরম্নল হক আমিন কর্তৃক অভিযোগের বিষয়টি ষ্পিত্তি হয়েছে মর্মে ৯/১০/১৬ তারিখের মাধ্যমে প্রত্যাহারের আবেদন করা হয়। আবেদনটি মঞ্জুর করে এদপ্তরে নথিবদ্ধের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। নিষ্পত্তির বিষয়টি এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫১১৪/৯৫৩, তারিখঃ ৮/১১/১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষকে জানানো হয়। নিষ্পত্তি
37 ডাইরী নং-২৭৫৫, তারিখ-২১/৯/১৬ কারখানা মালিকের ইউনিয়ন ধ্বংসের অপচেষ্টা প্রতিরোধ ভার্সুয়াল নীটওয়্যার লিঃ কারখানা খুলে দেয়া এবং ইউনিয়ন কর্মকর্তাদের ভার্সুয়াল নীট ওয়্যার লিঃ, প্লট নং এস এ ৭-৮, আর এস, ১১, ১২, ১৩, করমতলা, পূবাইল, গাজীপুর সদর, গাজীপুর। আমিরুল হক আমিন, জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন, ৩১/এফ, তোপখানা রোড (নীচতলা), ঢাকা-১০০০। অভিযোগের বিষয়ে অত্র দপ্তরের সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ আলমুতাজিদুল ইসলামকে দায়িত্ব প্রদান করে আগামী ০৯/১০/১৬ খ্রি. তারিখ সকাল ১১.০০ ঘটিকায় ইউনিয়ন অফিস এবং বেলা ২.০০ ঘটিকায় কারখানা সরেজমিনে তদন্ত করবেন। জনাব মোঃ আলমুতাজিদুল ইসলাম সহকারী শ্রম পরিচালক লে অপ বা ছাটাই জনিত পাওনাদি বিষয়ে কোন অভিযোগ থাকলে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরে অথবা গাজীপুর জেলা কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন দপ্তরের প্রতিকার পাওয়ার জন্য যোগাযোগ করা যেতে পারে। নিষ্পত্তি
38 ডাইরী নং-২৩৭৬, তারিখ-২৮/৮/১৬ সভাপতি ও সাধারণ সম্পদককে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে নেয়ার অভিযোগ প্রসঙ্গে। উইনার ওয়্যারস লিঃ, নয়নীচালা, নিশাত নগর, তুরাগ, ঢাকা। জনাব মোঃ আরমান আলী, সভাপতি, জনাব আছলাম, সাধারণ সম্পাদক, উইনার ওয়ারস লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন (রেজি: নং ঢাকা-৫১৩৩), বাড়ি নং-৭৪ (২য় তলা), কুনিয়াপাচর, বড়বাড়ি, জয়দেবপুর, গাজীপুর। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/৮৩৩/১৬/২৮৮৩, তা: ৩০/৮/১৬ এর মাধ্যমে অীভযোগের বিষয়ে ব্যবস্থাপনা পরিচালকের নিকট জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পক্ষ হতে ১৮/৯/১৬ তারিখে অভিযোগের জবাব প্রদান করা হয়। ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে চাকুরী চ্যুতির বিষয়ে ১৯/৯/১৬ তারিখে অভিযোগ করা হয়। বিষয়টি তদন্তের জন্য এ দপ্তরের উপ শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ জিয়াউল হক খানকে আহবায়ক এবং সহকারী শ্রম পরিচালক জনাব মোঃ সাইকুল ইসলাম কে সদস্য করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটি কর্তৃক ১/১০/১৬ তারিখে সরেজমিনে তদন্ত করা হয়। প্রতিবেদন অনুযায়ী অভিযোগের বিষয়টি অংশকারীগনের (স্টেক হোল্ডার) স্ব স্ব অবস্থানে অনঢ় থাকার কারনে নিষ্পত্তি করা যায়নি। একই বিষয়ে প্রতিকরের জন্য কলকারখানা ও পরিদর্শন অধিদপ্তরের প্রস্তাবিত ইউনিয়ন কর্তৃক আবেদন করা হয়। তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে মালিকপক্ষ, শ্রমিকপক্ষ এবং কলকারখানা দপ্তরের কর্মকর্তাদ্বয়ের উপস্থিতি গত ১০/১০/১৬ ও ১৮/১০/১৬ তারিখে দুটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় চাকুরীচ্যুত শ্রমিকের চাকুরী ফিরিয়ে দেয়ার বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি মর্মে তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। জনাব মোঃ জিয়াউল হক খান, উপ শ্রম পরিচালক ও জনাব মোঃ সাইকুল ইসলাম সহকারী শ্রম পরিচালক বিভাগীয় শ্রম দপ্তর,ঢাকা এবং কলকারখানা অধিদপ্তর কর্তৃক অভিযোগটি নিষ্পত্তি করার জন্য সম্ভাব্য সকল কার্যক্রম গ্রহণ করার পরও অংশগ্রহনকারীগনের অনঢ় অবস্থানের কারণে বিষয়টি নিষ্পত্তি করা যায়নি। বণিৃত অভিযোগের বিষয়টি বাংলাদেশ শ্রম আইন, ২০০৬ এর ধারা ৩৩ অনুযায়ী লে অফ ছাটাই, ডিসচার্জ, বরখাস্ত, অপসারণ অথবা অন্য কোন কারণে চাকুরীর অবসান ঘটলে অথবা অন্য কোন কারণে অথবা হলে প্রতিকার পাওয়ার সুনির্দিষ্ট আইনানুগ পদ্ধতি রয়েছে। মর্মে তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছৈ। ইহা এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫১৩৩/১১১৮, তা: ১৯/১২/১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
39 ডাইরী নং- ২৭০০, তারিখ- ১৯/৯/১৬ সভাপতি ও সাধারণ সম্পদককে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে নেয়ার অভিযোগ প্রসঙ্গে। উইনার ওয়্যারস লিঃ, নয়নীচালা, নিশাত নগর, তুরাগ, ঢাকা। জনাব মোঃ আরমান আলী, সভাপতি, জনাব আছলাম, সাধারণ সম্পাদক, উইনার ওয়ারস লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন (রেজি: নং ঢাকা-৫১৩৩), বাড়ি নং-৭৪ (২য় তলা), কুনিয়াপাচর, বড়বাড়ি, জয়দেবপুর, গাজীপুর। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/৮৩৩/১৬/২৮৮৩, তা: ৩০/৮/১৬ এর মাধ্যমে অীভযোগের বিষয়ে ব্যবস্থাপনা পরিচালকের নিকট জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পক্ষ হতে ১৮/৯/১৬ তারিখে অভিযোগের জবাব প্রদান করা হয়। ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে চাকুরী চ্যুতির বিষয়ে ১৯/৯/১৬ তারিখে অভিযোগ করা হয়। জনাব মোঃ জিয়াউল হক খান, উপ শ্রম পরিচালক, ও জনাব মোঃ সাইকুল ইসলাম সহকারী শ্রম পরিচালক বিভাগীয় শ্রম দপ্তর,ঢাকা এবং কলকারখানা অধিদপ্তর কর্তৃক অভিযোগটি নিষ্পত্তি করার জন্য সম্ভাব্য সকল কার্যক্রম গ্রহণ করার পরও অংশগ্রহনকারীগনের অনঢ় অবস্থানের কারণে বিষয়টি নিষ্পত্তি করা যায়নি। বণিৃত অভিযোগের বিষয়টি বাংলাদেশ শ্রম আইন, ২০০৬ এর ধারা ৩৩ অনুযায়ী লে অফ ছাটাই, ডিসচার্জ, বরখাস্ত, অপসারণ অথবা অন্য কোন কারণে চাকুরীর অবসান ঘটলে অথবা অন্য কোন কারণে অথবা হলে প্রতিকার পাওয়ার সুনির্দিষ্ট আইনানুগ পদ্ধতি রয়েছে। মর্মে তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছৈ। ইহা এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫১৩৩/১১১৮, তা: ১৯/১২/১৬ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
40 ডাইরী নং-৬৫৭ তারিখ-৩১/১/১৭ ইউনিয়নের আবেদন প্রক্রিয়াধীন থাকা অবস্থায় ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক চাকুরী হতে বিরত রাখার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরম্নদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। মাসট্রেড ইন্টারন্যাশনাল গার্মেন্টস লিঃ মোঃ সাদা মিয়া সহ-সভাপতি, শাওন সুপার মার্কেট (২য় তলা),বাসন সড়ক,জয়দেবপুর, গাজীপুর। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৮৭২/২০১৬/১৬০ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট লিখিত মতামত চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ থেকে কোন জবাব না দেয়ায় অভিযোগের বিষয়ে তদমেত্মর জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/ ৮৭২/ ২০১৬/১৪৩/১(৬),তারিখ-০৫/৩/১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটিকে অভিযোগের বিষয়ে তদমত্ম করার জন্য দায়িত্ব প্রদান করা হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম,উপ-শ্রম পরিচালক এবং মোঃ সাজ্জাদ হোসেন খান,সহকারী শ্রম পরিচালক অভিযোগকারী টার্মিনেশনের বেনিফিট এর টাকা বুঝে পেয়ে অভিযোগটি প্রত্যাহারের জন্য ০৯/০৫/২০১৭ খ্রি: তারিখে এ দপ্তরে আবেদন করেন। ইহা এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৮৭২/২০১৬/৮৪১, তাং-১৬/৫/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
41 ডাইরী নং-৬৫৮ তারিখ-৩১/১/১৭ ইউনিয়নের আবেদন প্রক্রিয়াধীন থাকা অবস্থায় ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক চাকুরী হতে বিরত রাখার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরম্নদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। মাসট্রেড ইন্টারন্যাশনাল গার্মেন্টস লিঃ মোঃ সাগর মিয়া, সাধারণ সম্পাদক, শাওন সুপার মার্কেট (২য় তলা),বাসন সড়ক,জয়দেবপুর, গাজীপুর। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৮৭২/২০১৬/১৬১ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট লিখিত মতামত চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ থেকে কোন জবাব না দেয়ায় অভিযোগের বিষয়ে তদমেত্মর জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/ ৮৭২/ ২০১৬/১৪৩/১(৬),তারিখ-০৫/৩/১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটিকে অভিযোগের বিষয়ে তদমত্ম করার জন্য দায়িত্ব প্রদান করা হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম,উপ-শ্রম পরিচালক এবং মোঃ সাজ্জাদ হোসেন খান,সহকারী শ্রম পরিচালক অভিযোগকারী টার্মিনেশনের বেনিফিট এর টাকা বুঝে পেয়ে অভিযোগটি প্রত্যাহারের জন্য ০৯/০৫/২০১৭ খ্রি: তারিখে এ দপ্তরে আবেদন করেন। ইহা এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৮৭২/২০১৬/৮৪৩, তাং-১৬/৫/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
42 ডাইরী নং-৬৫৯ তারিখ-৩১/১/১৭ ইউনিয়নের আবেদন প্রক্রিয়াধীন থাকা অবস্থায় ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক চাকুরী হতে বিরত রাখার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরম্নদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। মাসট্রেড ইন্টারন্যাশনাল গার্মেন্টস লিঃ মোছাঃ জাকিয়া ইয়াছমিন, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক, শাওন সুপার মার্কেট (২য় তলা),বাসন সড়ক,জয়দেবপুর, গাজীপুর। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৮৭২/২০১৬/১৬২ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট লিখিত মতামত চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ থেকে কোন জবাব না দেয়ায় অভিযোগের বিষয়ে তদমেত্মর জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/ ৮৭২/ ২০১৬/১৪৩/১(৬),তারিখ-০৫/৩/১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটিকে অভিযোগের বিষয়ে তদমত্ম করার জন্য দায়িত্ব প্রদান করা হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম,উপ-শ্রম পরিচালক এবং মোঃ সাজ্জাদ হোসেন খান,সহকারী শ্রম পরিচালক অভিযোগকারী টার্মিনেশনের বেনিফিট এর টাকা বুঝে পেয়ে অভিযোগটি প্রত্যাহারের জন্য ০৯/০৫/২০১৭ খ্রি: তারিখে এ দপ্তরে আবেদন করেন। ইহা এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৮৭২/২০১৬/৮৪০, তাং-১৬/৫/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
43 ডাইরী নং-৭১৬ তারিখ-০৫/২/১৭ ইউনিয়নের আবেদন প্রক্রিয়াধীন থাকা অবস্থায় ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক চাকুরী হতে বিরত রাখার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরম্নদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। মাসট্রেড ইন্টারন্যাশনাল গার্মেন্টস লিঃ মোঃ সালমা আক্তার, কার্যকরী সদস্য, শাওন সুপার মার্কেট (২য় তলা),বাসন সড়ক,জয়দেবপুর, গাজীপুর। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৮৭২/২০১৬/১৬৩ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট লিখিত মতামত চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ থেকে কোন জবাব না দেয়ায় অভিযোগের বিষয়ে তদমেত্মর জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/ ৮৭২/ ২০১৬/১৪৩/ ১(৬), তারিখ-০৫/৩/১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটিকে অভিযোগের বিষয়ে তদমত্ম করার জন্য দায়িত্ব প্রদান করা হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম,উপ-শ্রম পরিচালক এবং মোঃ সাজ্জাদ হোসেন খান,সহকারী শ্রম পরিচালক অভিযোগকারী টার্মিনেশনের বেনিফিট এর টাকা বুঝে পেয়ে অভিযোগটি প্রত্যাহারের জন্য ০৯/০৫/২০১৭ খ্রি: তারিখে এ দপ্তরে আবেদন করেন। ইহা এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৮৭২/২০১৬/৮৩৯, তাং-১৬/৫/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
44 ডাইরী নং-৩২৮ তারিখ-১৫/১/১৭ ইউনিয়ন করার কারণে সভাপতি, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক,অর্থ সম্পাদক এবং প্রচার সম্পাদককে ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে চাকুরী হতে বিরত রাখার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরম্নদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রসঙ্গে। দ্বীপ নীটওয়্যার লিঃ সোহেল রানা, সভাপতি এবং মোঃ শফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক, দ্বীপ নীটওয়্যার লিঃ শ্রমিক সংহতি ইউনিয়ন, ১৯/বি/১/১, পশ্চিম রামপুরা, ঢাকা। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৫১৬৭/২৪৫/১(৫),তারিখ ৫/৩/১৭ এর মাধ্যমে অভিযোগের বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট লিখিত মতামত চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ থেকে কোন জবাব না দেয়ায় অভিযোগের বিষয়ে তদমেত্মর জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৫১৬৭/১০৪/১(৮) এর মাধ্যমে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়। মোঃ শফিকুল ইসলাম উপ-শ্রম পরিচালক, মহববত হোসাইন সহকারী শ্রম পরিচালক ও সাজ্জাদ হোসেন খান সহকারী শ্রম পরিচালক তদন্তকারী কর্মকর্তারা ০৫/৪/২০১৭ ও ১৯/০৪/২০১৭ খ্রি: তারিখে দুই দফায় পর পর মালিক পক্ষ ও শ্রমিক পক্ষের সাথে মিটিং এর মাধ্যমে শ্রমিকদের ০৪ মাসের নোটিশ পে প্রদান, সার্ভিস বেনিফিটসহ টার্মিনেশনের পূর্ণ বিনিফিট প্রদান করায় দ্বীপ নীট ওয়্যার লিঃ এর পরিচালক জনাব মোঃ আতিকুর রহমান ও গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতি ফেডারেশনের সভাপতি মিজ স্মৃতি আক্তারের বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। ইহা এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/ঢাকা-৫১৬৭/৯৪৮, তাং-০১/০৬/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
45 ২৫/০৫/২০১৬ সংগঠনের সাধারন সম্পাদক কাজ না করেই এক ভাগ নেয়া এবং গোপন ব্যালটের মাধ্যমে কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন না করা। ফুলদিঘী হাট বাজার কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজি: নং-রাজ-১৯০২) জয়পুরহাট। স্বপন বাবু, ফুলদিঘী হাট বাজার কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, (রেজি: নং- রাজ-১৯০২) জয়পুরহাট। তদন্ত করে নিম্পত্তি করা হয়েছে। মোছা: মানজুরা আখাতার, সহকারী শ্রম পরিচালক
46 ৩০/০৬/২০১৬ ঠাকুরগাও জেলা কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজি: নং- রাজ-১০৪৯, ঠাকুরগাও কর্তৃক গঠনতন্ত্র সংশোধন না করে সমগ্র জেলা ব্যাপী কার্যক্রমে চালানো বিষয়ে। ঠাকুরগাও জেলা কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজি: নং- রাজ-১০৪৯, ঠাকুরগাও মোহাম্মদ আলী, সভাপতি, হরিপুর উপজেলা লেবার ইউনিয়ন, রাজ-৩০৫৩, যাদুরানী বাজার, হরিপুর, ঠাকুরগাও। পত্র দ্বারা অভিযুক্ত সংগঠনকে গঠনতন্ত্র সংশোধন করে নেয়ার জন্য পত্র দ্বারা তাগিদ হয়েছে। মো: মিজানুর রহমান সহকারী শ্রম পরিচালক
47 ২১/০৬/২০১৬ ২০১৬ সালের মাসিক চাদা গ্রহন না করায়। পাবনা জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৩৮১, হরিদেবপুর, সাথিয়া, পাবনা। মো: আব্দুল হাই, সাধারন সদস্য, পাবনা জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৩৮১, হরিদেবপুর, সাথিয়া, পাবনা। পত্র দ্বারা অভিযুক্ত সংগঠনকে মাসিক চাদা গ্রহন করার জন্য বলা হয়েছে। মো: মিজানুর রহমান সহকারী শ্রম পরিচালক
48 ২৫/০৭/২০১৬ হিলি স্থল বন্দর কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-১৭২৪, হাকিমপুর, দিনাজপুর এর রেজিস্ট্রেশন বাতিলের অভিযোগ। হিলি স্থল বন্দর কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-১৭২৪, হাকিমপুর, দিনাজপুর মো: জামাল, সভাপতি, বন্দর শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়ন, রাজ-২১০৩, হাকিমপুর, দিনাজপুর। সরেজমিনে তদন্ত করে নিস্পত্তি করা হয়েছে। মোহাম্মদ আকতারুজ্জামান, সহকারী শ্রম পরিচালক
49 ১৪/১২/২০১৬ ভুয়া সাধারন সভা ও নির্বাচন অনুষ্ঠান দেখানোর কারণে। মিশুলবাড়ী কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৪২৭, জলঢাকা, নীলফামারী। মো: মুকুল, সদস্য, মিশুলবাড়ী কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৪২৭, জলঢাকা, নীলফামারী। সরেজমিনে তদন্ত করে পরবর্তীতে সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। মোহাম্মদ আকতারুজ্জামান, সহকারী শ্রম পরিচালক
50 2161 উসকানী মুলক ও উদ্দেশ্য মুলক পত্র প্রেরণ জয়পুরহাট জেলা ট্রাক ও ট্যাংকলরী শ্রমিক ইউনিয়ন, জয়পুরহাট। মো: আনিছুর রহমান আনিছ, সভাপতি ও মো: মিজানুর রহমান, সাধারন সম্পাদক জয়পুরহাট জেলা ট্রাক ও ট্যাংকলরী শ্রমিক ইউনিয়ন, জয়পুরহাট। পত্র প্রদান করে নিষ্পত্তি করা হয়েছে। মোছা: মানজুরা আখাতার, সহকারী শ্রম পরিচালক
51 2271 কালাই উপজেলা গৃহ নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৯৬৭, কালাই, জয়পুরহাট এর শাখা অফিস স্থাপন করে এবং মিকচার মেশিন আটকিয়ে রাখা। কালাই উপজেলা গৃহ নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৯৬৭, কালাই, জয়পুরহাট মো: হাফিজুল, সভাপতি ও মো: ইসলাম, সাধারন সম্পাদক, কালাই উপজেলা মিকচার ও ভাইব্রেটর ও ইট ভাঙ্গা মেশিন মালিক সমিতি, রাজ-৩০৭৭, কালাই, জয়পুরহাট। তদন্ত করে নিম্পত্তি করা হয়েছে। মোছা: মানজুরা আখাতার, সহকারী শ্রম পরিচালক
52 2272 কালাই উপজেলা গৃহ নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৯৬৭, কালাই, জয়পুরহাট এর শাখা অফিস স্থাপন করে এবং মিকচার মেশিন আটকিয়ে রাখা। কালাই উপজেলা গৃহ নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৯৬৭, কালাই, জয়পুরহাট সভাপতি/সাধারন সম্পাদক, কালাই উপজেলা ইমারত নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ- ২০৬৫, কালাই, জয়পুরহাট। তদন্ত করে নিম্পত্তি করা হয়েছে। মোছা: মানজুরা আখাতার, সহকারী শ্রম পরিচালক
53 2273 শ্রমিক ইউনিয়ন কর্তৃক মালিক সমিতির কাজে বাধা প্রদান। জয়পুরহাট মিকচার মেশিন মালিক সমিতি, জয়পুরহাট। মো: জাহিদুল, সভাপতি, মো: ফরিদুল, সাধারন সম্পাদক, জয়পুরহাট মিকচার মিশিন মালিক সমিতি, রাজ-২৯৪৫, জয়পুরহাট। অত্র দপ্তরে দি-পাক্ষিক আলোচনা করে নিষ্পত্তি করা হয়েছে। মোছা: মানজুরা আখাতার, সহকারী শ্রম পরিচালক
54 3089 শ্রমিকের কর্মস্থলে কাজে বাধা প্রদান, মারপিটের হুমকি ও শ্রমিকের মাঝে দ্বন্দ্ব কলহ সৃষ্টি কারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের আবেদন। পাচবিবি রাইস মিল ও চাতাল মো: মাসুম আলম, সাধারন সম্পাদক, পাচবিবি উপজেলা রাইস মিল ও চাতাল শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৩০৬৬, পাচবিবি, জয়পুরহাট। সরেজমিনে তদন্ত করে নিস্পত্তি করা হয়েছে। মো: খোরশেদ আলম সহকারী শ্রম পরিচালক
55 3090 রেজিস্ট্রেশন পরবর্তী সংগঠনের সার্বিক অবস্থা ও নির্বাচন অনুষ্ঠান না করা প্রসঙ্গে। শাহজাদপুর পৌর বনিক সমিতি, রাজ-২৫৬২, শাহজাদপুর, সিরাজগঞ্জ। খালেক বিশ্বাস, শাহনুর মোহাম্মদ আজিজুল হক সাধারন সদস্য, শাহজাদপুর পৌর বনিক সমিতি, রাজ-২৫৬১, শাহজাদপুর। সরেজমিনে তদন্ত করে নিস্পত্তি করা হয়েছে। খালেদা জাহান সহকারী শ্রম পরিচালক
56 3121 সিরাজগঞ্জ রিক্সা ও ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন সিরাজগঞ্জ রিক্সা ও ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটির গঠনতন্ত্র বিরোধী কার্যকলাপ বন্ধ করা প্রসঙ্গে। মো: আবু হানিফ, সাবেক সাধারন সম্পাদক, সিরাজগঞ্জ রিক্সা ও ভ্যান শ্রমিক ই্উনিয়ন, সিরাজগঞ্জ। সরেজমিনে তদন্ত করে নিস্পত্তি করা হয়েছে। খালেদা জাহান সহকারী শ্রম পরিচালক
57 3105 রেজিস্ট্রেশন বাতিলের অভিযোগ। চিলমারী উপজেলা কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৫৮৩, চিলমারী, কুড়িগ্রাম। মো: বাদশা আলমঙ্গীর, সভাপতিচিলমারী উপজেলা কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৫৮৩, চিলমারী, কুড়িগ্রাম। অভিযোগটি আইনগত না হওয়ায় আমলে নেয়া হয়নি। মো: মিজানুর রহমান সহকারী শ্রম পরিচালক
58 3217 সরকারী প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করার পরও ব্যক্তি/মালিকানাধীন ইউনিয়নের সদস্য হওয়ায়। সিরাজগঞ্জ জেলা ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৮১৫, সিরাজগঞ্জ। মো: আলাউদ্দিন, সহ সাধারন সম্পাদকসিরাজগঞ্জ জেলা ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৮১৫, সিরাজগঞ্জ। পত্র প্রেরনের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়েছে। খালেদা জাহান সহকারী শ্রম পরিচালক
59 206 বোদা উপজেলা সাকোয়া নামক স্থানে শাখা অফিস বন্ধ প্রসঙ্গে। পঞ্চগড় জেলা মটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৬৪, পঞ্চগড়। খন্দ: মো: আ: রশিদ, সাধারন সম্পাদক, পঞ্চগড় জেলা মটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৬৪, পঞ্চগড়। সরেজমিনে তদন্ত করে নিম্পত্তি করা হয়েছে। মো: মিজানুর রহমান সহকারী শ্রম পরিচালক
60 284 অন্যায় ভাবে সংগঠন পরিচালনা। পীরগঞ্জ উপজেলা নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৬১৫, পীরগঞ্জ, ঠাকুরগাও। মো: রেজাউল করিম, চাদা দাতা সদস্য।পীরগঞ্জ উপজেলা নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৬১৫, পীরগঞ্জ, ঠাকুরগাও। অভিযোগকারী রেকর্ডপত্র সহ উপস্থিত না হওয়ায় নিষ্পত্তি খালেদা জাহান সহকারী শ্রম পরিচালক
61 702 সংগঠনের সনদপত্র আত্মসাৎ নিশ্চিন্ত বাজার লোড আনলোড কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২২৫৬, ক্ষেতলাল, জয়পুরহাট। মো: হাবিবুর রহমান, সভাপতি ও মো: শহিদুল ইসলাম, সহ সভাপতি, নিশ্চিন্ত বাজার লোড আনলোড কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২২৫৬, ক্ষেতলাল, জয়পুরহাট। তদন্ত করে নিম্পত্তি করা হয়েছে। মো: মিজানুর রহমান সহকারী শ্রম পরিচালক
62 1298 সাংগঠনিক বিরোধ নিষ্পত্তি পঞ্চগড় জেলা কাঠ মিস্ত্রি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৪৭৭, ধাক্কামারা, পঞ্চগড়। মো: হাসিবুল ইসলাম, সাধারন সদস্য পঞ্চগড় জেলা কাঠ মিস্ত্রি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৪৭৭, ধাক্কামারা, পঞ্চগড়। পত্র প্রদান করে নিষ্পত্তি করা হয়েছে। মো: মিজানুর রহমান সহকারী শ্রম পরিচালক
63 1422 নির্বাচন অনুষ্ঠানে অনিয়ম থাকায় পুনরায় নির্বাচনের আবেদন সিরাজগঞ্জ জেলা অটোটেম্পু অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-১৯৮৫, সিরাজগঞ্জ। মো: হাসিদুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক পদপ্রার্থী। সিরাজগঞ্জ জেলা অটোটেম্পু অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-১৯৮৫, সিরাজগঞ্জ। সরেজমিনে তদন্ত করে অভিযোগের সতত্যা যাচাই করার জন্য পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েয়ে। খালেদা জাহান সহকারী শ্রম পরিচালক
64 ১৯/০৪/২০১৭ সিরাজগঞ্জ জেলা অটোটেম্পু অটোরিক্সা মালিক সমিতি, রাজ-১১১০, সিরাজগঞ্জ। তদন্ত করে নিম্পত্তি করা হয়েছে। খালেদা জাহান সহকারী শ্রম পরিচালক
65 1707 এলাকা নির্ধারন সংক্রান্ত। আটোয়ারী সদর কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৫০২, আটোয়ারী, পঞ্চগড়। মো: মুসলিম, সাধারন সম্পাদক, আটোয়ারী উপজেলা লোড আনলোড শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৭০৮, আটোয়ারী পঞ্চগড়। উভয়পক্ষের সাথে আলোচনর মাধ্যমে নিস্পত্তি করা হয়েছে। মো: মিজানুর রহমান, সহকারী পরিচালক
66 1718 মিথ্যা তথ্য দিয়ে রেজিস্ট্রেশন গ্রহ করায়। পাচবিবি উপজেলা কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-১৪৮৫, পাচবিবি, জয়পুরহাট্ মো: মাসুম আলম, সাধারন সম্পাদক, পাচবিবি উপজেলা রাইস মিল ও চাতাল শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৩০৬৬, পাচবিবি, জয়পুরহাট। তদন্তকরে সত্যতা পাওয়া যায়নি। মোছা: মানজুরা আখাতার, সহকারী পরিচালক
67 2197 আইনানুগ ভাবে সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক কর্তৃক ইউনিয়ন পরিচালনা প্রসংগে। পীরগঞ্জ উপজেলা নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৬১৫, পীরগঞ্জ, ঠাকুরগাও। মো: রেজাউল করিম, চাদা দাতা সদস্য।পীরগঞ্জ উপজেলা নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৬১৫, পীরগঞ্জ, ঠাকুরগাও। উভয়পক্ষকে অত্র দপ্তরে ডেকে সমাধান করা হয়েছে। মো: মিজানুর রহমান, সহকারী পরিচালক
68 2160 নির্বাচন অনুষ্ঠান সম্পর্কে বেলকুচি উপজেলা রিক্সা ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৮১৭, বেলকুচি, সিরাজগঞ্জ। মো: সিরাজুল গং সদস্য বেলকুচি উপজেলা রিক্সা ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৮১৭, বেলকুচি, সিরাজগঞ্জ। নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য পত্র প্রেরন করা হয়েছে। মোছা: মানজুরা আখাতার, সহকারী পরিচালক
69 2169 নির্বাচন না করা প্রসংগে ফকিরগঞ্জ বাজার বনিক সমিতি, রাজ-১৩২১, আটোয়ারী, পঞ্চগড়। মো: দুলাল গং সাধারন সদস্য, ফকিরগঞ্জ বাজার বনিক সমিতি, রাজ-১৩২১, অটোয়ারী, পঞ্চগড়। নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য পত্র প্রেরন করা হয়েছে। মো: মিজানুর রহমান, সহকারী পরিচালক
70 3490 সদস্যদের তালিকা অনুমোদন প্রসংগে। বহুতি দুর্গাপুর কুলিমজদুর শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২০৪৭, কালাই, জয়পুরহাট। মো: আলমগীর হোসেন, সাধারন সম্পাদক, বহুতি দুর্গাপুর কুলি মজদুর শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২০৪৭, কালাই, জয়পুরহাট। পত্র প্রদান পূর্বক আইনগত পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে। মোছা: মানজুরা আখাতার, সহকারী পরিচালক
71 3710 অ-শ্রমিক দ্বারা কমিটি গঠন প্রসংগে। সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা লোড আনলোড কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৭৬০, কাজীপুর, সিরাজগঞ্জ। মো: আব্দুল মালেক, সদস্য, মো: সোহরাব সদস্য ও মো: মোতালেব সদস্য সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা লোড আনলোডকুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৭৬০, কাজীপুর, সিরাজগঞ্জ। আইনগত পদক্ষেপ নেয়ার জন্য পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে। মোছা: মানজুরা আখাতার, সহকারী পরিচালক
72 3722 ৪০ জ সদস্যকে হয়রানি করা প্রসংগে। মো: কলিমুদ্দিন গং, তেতুলিয়া উপজেলা লোড আনালোড কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৩০৫, তেতুলিয়া, পঞ্চগড়। মো: কলিমুদ্দিন গং, তেতুলিয়া উপজেলা লোড আনলোড কুলি শমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৩০৫, তেতুলিয়া, পঞ্চগড়। সরেজমিনে তদন্ত করে নিস্পত্তি করা হয়েছে। মো: মিজানুর রহমান, সহকারী পরিচালক
73 84 কর্ম এলাকা নির্ধারন প্রসংগে। কালাই উপজেলা নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৭২৫, কালাই, জয়পুরহাট। মো: আবুল হোসেন, সভাপতি কালাই উপজেলা নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৭২৫, কালাই, জয়পুরহাট। গেজেটে নির্ধারিত কর্ম এলাকা মেনে চলার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। মোছা: মানজুরা আখাতার, সহকারী পরিচালক
74 207 সাধারন সম্পাদক কর্তৃক শাখা অফিস স্থাপন করে বন্দোবস্তের কার্যক্রম পরিচালানা প্রসংগে। রাজশাহী জেলা ট্রাক ট্যাংলকরী শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-১৬০৭, বোয়ালিয়া থানার মোড়, রাজশাহী। মো: বুলবুল, সাধারন সদস্য, রাজশহী জেলা ট্রাক ট্যাংকলর শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-১৬০৭ক, বোয়ালিয়া, রাজশাহী। উক্ত বিষয়ে শ্রম আদালত রাজশাহীতে মামলা থাকায় পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়নি। মোছা: মানজুরা আখাতার, সহকারী পরিচালক
75 605 মজুরী বৃদ্ধি প্রসংগে। নওগা উপজেলা দর্জি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-১৩০১, পার-নওগা। মো: মজিবুর রহমান দর্জি দোকান মালিক, পার-নওগা। উভয় পক্ষের সাথে আলোচনার মাধ্যমে নিস্পত্তি মোছা: মানজুরা আখাতার, সহকারী পরিচালক
76 1128 নির্বাচন বাতিল পূর্বক সুষ্ঠুভাবে পুনরায় নির্বাচনের আবেদন। জয়পুরহাট সংবাদ পত্র হকার্স শ্রমিক ইউনিয়ন, জয়পুরহাট। মো: নুর আলম, সাবেক সাধারন সম্পাদক, জয়পুরহাট সদর, জয়পুরহাট। পত্র প্রেরন পূর্বক আইনগত পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে। মো: মিজানুর রহমান, সহকারী পরিচালক
77 1151 আটোয়ারী উপজেলা কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৭০৮, ফকিরগঞ্জ, আটোয়ারী, পঞ্চগড়। আটোয়ারী উপজেলা কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৭০৮, ফকিরগঞ্জ, আটোয়ারী, পঞ্চগড়। মো: মসলেম উদ্দিন, সাধারন সম্পাদক, আটোয়ারী উপজেলা কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-২৫০২, ফকিরগঞ্জ, আটোয়রী, পঞ্চগড়। তদন্ত করে নিস্পত্তি করা হয়েছে। মো: মিজানুর রহমান, সহকারী পরিচালক
78 1621 নির্বাচনী তফসিল ঘোষনা প্রসংগে। পাবনা জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৩৮১, বেড়া, পাবনা। মো: সোলেমান শেখ, সদস্য নং-৬৩, পাবনা জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজ-৩৮১, বেড়া, পাবনা। পত্র প্রেরন পূর্বক আইনগত পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে। মো: মিজানুর রহমান, সহকারী পরিচালক
79 2118 সাধারন সদস্য পদ হতে ইস্তফা প্রসংগে। পঞ্চগড় জেলা বাস মিনিবাস কোচ মালিক সমিতি, রাজ-৯৮৫, তেতুলিয়া, পঞ্চগড়। মো: আকবর আলী, সাধারন সদস্য, পঞ্চগড় জেলা বাস মিনিবাস কোচ মালিক সমিতি, রাজ-৯৮৫, তেতুলিয়া, পঞ্চগড়। আইনের বিধান অনুসরন পূর্বক কর্যক্রম গ্রহন করার জন্য পত্র দেয়া হয়েছে। মো: মিজানুর রহমান, সহকারী পরিচালক
80 3681 ইউনিয়নের রেজিষ্ট্রার আবেদন করার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকে আকিজ টেক্সটাইল মিলস লিঃ গোলড়া, চড়খন্ড মানিকগঞ্জ থেকে আকিজ জুট মিলস লি, নওয়াপাড়া যশোর এ বদলীর বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন প্রসঙ্গে। আকিজ টেক্সটাইল মিলস লিঃ গোলড়া, চরখন্ড মানিকগঞ্জ। মোঃ রুবেল হোসেন সভাপতি এবং মোঃ ইমামুল হক, সাধারণ সম্পাদক আকিজ টেক্সটাইল মিলস লিঃ শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়ন গোলড়া, চরখন্ড, মানিকগঞ্জ। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৮৮৯/২০১৭/১০৪২ এবং ১০৪৩, তারিখ ৯/৭/১৭ এর মাধ্যমে আইনের বিধানবলী স্মরন করিয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট অভিযোগের বিষয়ে জবাব চাওয়া হয়। এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/৮৮৯/১২০৮/১/৩ এবং আরটিইউ/৮৮৯/২০১৭/২০১৭/১২০৯/১(৩) তারিখ-২১/৮/২০১৭ এর মাধ্যমে দু জনের চাকুরীচ্যুত পুনঃবহালের বিষয়টি সংশ্লিষ্টদের জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
81 3682 ইউনিয়নের রেজিষ্ট্রার আবেদন করার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকে আকিজ টেক্সটাইল মিলস লিঃ গোলড়া, চড়খন্ড মানিকগঞ্জ থেকে আকিজ জুট মিলস লি, নওয়াপাড়া যশোর এ বদলীর বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন প্রসঙ্গে। আকিজ টেক্সটাইল মিলস লিঃ গোলড়া, চরখন্ড মানিকগঞ্জ। মোঃ রুবেল হোসেন সভাপতি এবং মোঃ ইমামুল হক, সাধারণ সম্পাদক আকিজ টেক্সটাইল মিলস লিঃ শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়ন গোলড়া, চরখন্ড, মানিকগঞ্জ। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৮৮৯/২০১৭/১০৪২ এবং ১০৪৩, তারিখ ৯/৭/১৭ এর মাধ্যমে আইনের বিধানবলী স্মরন করিয়ে ব্যবস্থঅপনা কর্তৃপক্ষের নিকট অভিযোগের বিষয়ে জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ৬/৩/১৭ তারিখের পত্রের মাধ্যমে জানান কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত মোতাবেক জনাব মোঃ ইমামুল হক (এনারবল-২০০৪৯০) হেলপার(হাইড্রো এন্ড ডায়রী) ইয়ান ডাইং ইউনিট, আকিজ টেক্রটাইল মিলস লি:, গোলড়া, চরখন্ড মানিকগঞ্জ এর বদলীর আবেশ নং-এটিএমএল/মানব সম্পদ ও প্রমা:/১০১৭/৭০১৪, তাং-২১/৬/১৭ এর মাধ্যমে পূর্বের কর্মস্থলে পুন:বহাল করা হয়। এবং মোঃ রুবেল হোসেন(এনরোল-১৮৫৮৭১), হেলপার (কোয়লিটি কন্টোল) ইয়ার্ন ডাইং ইউনিট, আকিজ টেক্সটাইল মিলস লিঃ, গোলড়া চরখন্ড, মানিকগঞ্জ এর বদলীর আদেশ নং এটিএমএল/মানব সম্পদ ও প্রশা/২০১৭/৭০০৩, ২১/০৬/১৭ এর মাধ্যমে পূর্বের কর্মস্থলে পুন:বহাল করা হয়। এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/৮৮৯/১২০৮/১/৩ এবং আরটিইউ/৮৮৯/২০১৭/২০১৭/১২০৯/১(৩) তারিখ-২১/৮/২০১৭ এর মাধ্যমে দু জনের চাকুরীচ্যুত পুনবহালের বিষয়টি সংশ্লিষ্টদের জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
82 4195 ইউনিয়নের সভাপতি আছমাসহ অন্যান্যদের ভয়ভীতি প্রদর্শন এবং জোড়পুর্বক সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে চাকুরীচ্যুত করা হয়েছে মর্মে ব্যবস্থাপনা কর্তৃগপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। ভুলুয়া ফুটওয়্যার ইন্ডাষ্ট্রিজ লিঃ দিয়া মাঠিয়া, হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা। নাছিমা, সভাপতি এবং পুতুল আক্তার, সাধারণ সম্পাদক ভুলুয়া ফুটওয়্যার ইন্ডাষ্ট্রিজ লিঃ সম্মিলিত শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজি:৫২০২ এইচ, ৬১/১(৪র্থ তলা) নিউ এযাপোর্ট রোড, আমতলী, মহাখালী ঢাকা-১২১২। অভিযোগ প্রা্প্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫২০২/১১৯৬/১(৫) , তাং ১৭/৮/১৭ এর মাধ্যমে অভিযোগের বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট মতামত চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অভিযোগের বিষয়ে কোন মতামত প্রদান না করায় এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫২০২/১২৯৫, তারিখ ১৯/৯/১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কর্মকর্তাগন প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন বাংলাদেম শ্রম আইন-২০০৬ এর ১৯৫ ধারায় মালিক কর্তৃক অসৎশ্রম আচড়নের সংগঠনের বিষয়াদি বিধৃত হয়েছে। তদন্তে প্রাপ্ত সাক্ষ্য প্রমানাদি পর্যালোচনায় ভুলুয়া ফুটওয়্যার ইন্ডা:লি: সম্মিলিত শ্রমিক ইউনিয়ন রেজি নং-৫২০২ এর সভাপতি নাছিমা আক্তার কর্তৃক প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ৬/৮/১৭ তারিকে অসৎ শ্রম আচরণ সংগঠনের অভিযোগের সত্যতা প্রতিভাত হয়েছে। যথাযথ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ট্রেড ইউনিয়নের সভাপতিকে হুমকি প্রদর্শন, কাজে ওযাগদান হতে বিরত রাখা বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ এর ধারা ১৯৫ লংঘনের সামীল বিধায় কারখানা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ এর ধারা ২৯১(১) মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহনের সুপারিশ করা হয়। আলমুতাহিদুল ইসলাম, সশ্রপ এবং মোঃ আতাউর রহমান মন্ডল, সশ্রপ তদন্ত কমকর্তার সুপারিশ আলোকে ২৩/১০/১৭ তারিখে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে বিএলএ ফৌজদারী মামলা ২৭০/২০০৭ দায়ের করা হয়েছে। ইহা এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৫২০২/২০১৬/১৪৪০, তাং-২৪/১০/১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। মাননীয় প্রথম শ্রম আদালত বিএলএ ফৌজদারী ২৭০/২০১৭ বিবারণ রয়েছে।
83 1145 ইউনিয়নের সদস্য সম্পাদকে জোড় পূর্বক সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে বের করে দেয়ার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থাপ গ্রহণ প্রসঙ্গে। আশিয়ানা গামেন্টস লি:,২/১, পূর্ব রামপুরা ডিআইট রোড, ঢাকা-১২১৯ খাদিজা, সদস্য আশিয়ানা গার্মেন্টস শ্রমিক ইউনিয়ন,২/১, পূর্ব রামপুরা ডিআইট রোড, ঢাকা-১২১৯ অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/০৯/২০১৭/২৭৭/১(৩) তারিখ ৬/৮/২০১৭ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা পরিচালক বরাবর অভিযোগের বিষয়মতামত চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ২১/৮/১৭ তারিখের পত্রের মাধ্যমে জানান অভিযোগকারী কারখানায কর্মরত রয়েছে। পরবর্তীতে অভিযোগকারী ১২/৯/১৭ তারিখে পতে জানান তাকে চাকুরীতে পুন:বহাল করা হযেছে। চাকরীতে পুনবহাল বিষয়টি এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/৯০৮/২০১৭/১২৭৩, তারিখ ১৩/৯/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট পক্ষগণকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
84 289 সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সহ-সভাপতি, সহ:সাধারণ সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, সাংগঠনিক সম্পাদক, দপ্তর সম্পাদক, ও কার্যকরী সদস্যসহ মোট ৮ জনকে ইউনিয়ন করার কারণে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লি: নামুর, মুচিপাড়া, হেমায়েতপুর, সাভার। ১। রাজিয়া সুলতানা, সভাপতি ২।মোঃ জাফর, সহ: সভাপতি ৩।মোঃ অন্তর, সাধারণ সম্পাদক ৪।মোঃ বুলবুল, সহ:সাধারণ সম্পাদক ৫। মো: সোহেল, কোষাধ্যক্ষ ৬। মোঃ রফিক, সাংগঠনিক সম্পাদক ৭। মোঃ আল আমিন, দপ্তর সম্পাদক ৮। ডলি আক্তার, কার্যকরী সদস্য, কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রোড নং-৩, প্লট-৭, হারুন সুপার মার্কেট, সেনপাড়া, পর্বতা, মিরপুর-১০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯০৭/২০১৭/১২৯০,১২৮৯, ১২৯২, ১২৮৮, ১২৮৭, ১২৮৬, ১২৮৫ তাং-১৮/৯/১৭ এর মাধ্যমে ভিন্ন ভিন্ন স্মারকে ব্যবস্থপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ উল্লেখিত ৮টি অভিযোগের কোন জবাব দাখিল না করায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৭/২০১৭/৩৮৫, তাং-৯/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে দু’জন কর্মকর্তার সমন্বয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কর্মকর্তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করে অভিযোগের বিষযে শ্রমিকপক্ষ এবং মালিকপক্ষের সাথে আলোচনা হয়। উভয়পক্ষ তদন্তকারী কর্মকর্তাদেরকে অবহিত করেন যে, গত ৬/১০/২০১৭ তারিখে বিজিএমইন, গ্রীনবাংলা গার্মেন্টস ওয়াকার্স ফেডারেশন এবং কিউপয়েন্ট শ্রমিক কর্মচারী মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা হয়। সমঝোতার ভিত্তিতে অভিযোগকারীর সকল পাওনা ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক পরিশোধ করা হয়। অভিযোগের বিষয়ে আর কোন আপত্তি না থাকায় ঢাকা বিভাগীয় শ্রম দপ্তরের কর্মকর্তার উপস্থিত্তিতে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম উদ্দিন শ্রম কর্মকর্তা অভিযোগের বিষয়টি নিষ্পত্তি হওয়ায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ-ঢাকা৫২২৯/১৪৬৭, ১৪৬৮, ১৪৬৯, ১৪৭০, ১৪৭২, ১৪৭১, ১৪৭৩, ১৪৭৪ তাং-৩০/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট জনকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
85 290 সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সহ-সভাপতি, সহ:সাধারণ সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, সাংগঠনিক সম্পাদক, দপ্তর সম্পাদক, ও কার্যকরী সদস্যসহ মোট ৮ জনকে ইউনিয়ন করার কারণে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লি: নামুর, মুচিপাড়া, হেমায়েতপুর, সাভার। ১। রাজিয়া সুলতানা, সভাপতি ২।মোঃ জাফর, সহ: সভাপতি ৩।মোঃ অন্তর, সাধারণ সম্পাদক ৪।মোঃ বুলবুল, সহ:সাধারণ সম্পাদক ৫। মো: সোহেল, কোষাধ্যক্ষ ৬। মোঃ রফিক, সাংগঠনিক সম্পাদক ৭। মোঃ আল আমিন, দপ্তর সম্পাদক ৮। ডলি আক্তার, কার্যকরী সদস্য, কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রোড নং-৩, প্লট-৭, হারুন সুপার মার্কেট, সেনপাড়া, পর্বতা, মিরপুর-১০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯০৭/২০১৭/১২৯০,১২৮৯, ১২৯২, ১২৮৮, ১২৮৭, ১২৮৬, ১২৮৫ তাং-১৮/৯/১৭ এর মাধ্যমে ভিন্ন ভিন্ন স্মারকে ব্যবস্থপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ উল্লেখিত ৮টি অভিযোগের কোন জবাব দাখিল না করায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৭/২০১৭/৩৮৫, তাং-৯/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে দু’জন কর্মকর্তার সমন্বয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কর্মকর্তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করে অভিযোগের বিষযে শ্রমিকপক্ষ এবং মালিকপক্ষের সাথে আলোচনা হয়। উভয়পক্ষ তদন্তকারী কর্মকর্তাদেরকে অবহিত করেন যে, গত ৬/১০/২০১৭ তারিখে বিজিএমইন, গ্রীনবাংলা গার্মেন্টস ওয়াকার্স ফেডারেশন এবং কিউপয়েন্ট শ্রমিক কর্মচারী মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা হয়। সমঝোতার ভিত্তিতে অভিযোগকারীর সকল পাওনা ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক পরিশোধ করা হয়। অভিযোগের বিষয়ে আর কোন আপত্তি না থাকায় ঢাকা বিভাগীয় শ্রম দপ্তরের কর্মকর্তার উপস্থিত্তিতে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম উদ্দিন শ্রম কর্মকর্তা অভিযোগের বিষয়টি নিষ্পত্তি হওয়ায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ-ঢাকা৫২২৯/১৪৬৭, ১৪৬৮, ১৪৬৯, ১৪৭০, ১৪৭২, ১৪৭১, ১৪৭৩, ১৪৭৪ তাং-৩০/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট জনকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
86 291 সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সহ-সভাপতি, সহ:সাধারণ সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, সাংগঠনিক সম্পাদক, দপ্তর সম্পাদক, ও কার্যকরী সদস্যসহ মোট ৮ জনকে ইউনিয়ন করার কারণে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লি: নামুর, মুচিপাড়া, হেমায়েতপুর, সাভার। ১। রাজিয়া সুলতানা, সভাপতি ২।মোঃ জাফর, সহ: সভাপতি ৩।মোঃ অন্তর, সাধারণ সম্পাদক ৪।মোঃ বুলবুল, সহ:সাধারণ সম্পাদক ৫। মো: সোহেল, কোষাধ্যক্ষ ৬। মোঃ রফিক, সাংগঠনিক সম্পাদক ৭। মোঃ আল আমিন, দপ্তর সম্পাদক ৮। ডলি আক্তার, কার্যকরী সদস্য, কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রোড নং-৩, প্লট-৭, হারুন সুপার মার্কেট, সেনপাড়া, পর্বতা, মিরপুর-১০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯০৭/২০১৭/১২৯০,১২৮৯, ১২৯২, ১২৮৮, ১২৮৭, ১২৮৬, ১২৮৫ তাং-১৮/৯/১৭ এর মাধ্যমে ভিন্ন ভিন্ন স্মারকে ব্যবস্থপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ উল্লেখিত ৮টি অভিযোগের কোন জবাব দাখিল না করায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৭/২০১৭/৩৮৫, তাং-৯/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে দু’জন কর্মকর্তার সমন্বয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কর্মকর্তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করে অভিযোগের বিষযে শ্রমিকপক্ষ এবং মালিকপক্ষের সাথে আলোচনা হয়। উভয়পক্ষ তদন্তকারী কর্মকর্তাদেরকে অবহিত করেন যে, গত ৬/১০/২০১৭ তারিখে বিজিএমইন, গ্রীনবাংলা গার্মেন্টস ওয়াকার্স ফেডারেশন এবং কিউপয়েন্ট শ্রমিক কর্মচারী মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা হয়। সমঝোতার ভিত্তিতে অভিযোগকারীর সকল পাওনা ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক পরিশোধ করা হয়। অভিযোগের বিষয়ে আর কোন আপত্তি না থাকায় ঢাকা বিভাগীয় শ্রম দপ্তরের কর্মকর্তার উপস্থিত্তিতে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম উদ্দিন শ্রম কর্মকর্তা অভিযোগের বিষয়টি নিষ্পত্তি হওয়ায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ-ঢাকা৫২২৯/১৪৬৭, ১৪৬৮, ১৪৬৯, ১৪৭০, ১৪৭২, ১৪৭১, ১৪৭৩, ১৪৭৪ তাং-৩০/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট জনকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
87 292 সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সহ-সভাপতি, সহ:সাধারণ সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, সাংগঠনিক সম্পাদক, দপ্তর সম্পাদক, ও কার্যকরী সদস্যসহ মোট ৮ জনকে ইউনিয়ন করার কারণে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লি: নামুর, মুচিপাড়া, হেমায়েতপুর, সাভার। ১। রাজিয়া সুলতানা, সভাপতি ২।মোঃ জাফর, সহ: সভাপতি ৩।মোঃ অন্তর, সাধারণ সম্পাদক ৪।মোঃ বুলবুল, সহ:সাধারণ সম্পাদক ৫। মো: সোহেল, কোষাধ্যক্ষ ৬। মোঃ রফিক, সাংগঠনিক সম্পাদক ৭। মোঃ আল আমিন, দপ্তর সম্পাদক ৮। ডলি আক্তার, কার্যকরী সদস্য, কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রোড নং-৩, প্লট-৭, হারুন সুপার মার্কেট, সেনপাড়া, পর্বতা, মিরপুর-১০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯০৭/২০১৭/১২৯০,১২৮৯, ১২৯২, ১২৮৮, ১২৮৭, ১২৮৬, ১২৮৫ তাং-১৮/৯/১৭ এর মাধ্যমে ভিন্ন ভিন্ন স্মারকে ব্যবস্থপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ উল্লেখিত ৮টি অভিযোগের কোন জবাব দাখিল না করায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৭/২০১৭/৩৮৫, তাং-৯/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে দু’জন কর্মকর্তার সমন্বয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কর্মকর্তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করে অভিযোগের বিষযে শ্রমিকপক্ষ এবং মালিকপক্ষের সাথে আলোচনা হয়। উভয়পক্ষ তদন্তকারী কর্মকর্তাদেরকে অবহিত করেন যে, গত ৬/১০/২০১৭ তারিখে বিজিএমইন, গ্রীনবাংলা গার্মেন্টস ওয়াকার্স ফেডারেশন এবং কিউপয়েন্ট শ্রমিক কর্মচারী মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা হয়। সমঝোতার ভিত্তিতে অভিযোগকারীর সকল পাওনা ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক পরিশোধ করা হয়। অভিযোগের বিষয়ে আর কোন আপত্তি না থাকায় ঢাকা বিভাগীয় শ্রম দপ্তরের কর্মকর্তার উপস্থিত্তিতে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম উদ্দিন শ্রম কর্মকর্তা অভিযোগের বিষয়টি নিষ্পত্তি হওয়ায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ-ঢাকা৫২২৯/১৪৬৭, ১৪৬৮, ১৪৬৯, ১৪৭০, ১৪৭২, ১৪৭১, ১৪৭৩, ১৪৭৪ তাং-৩০/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট জনকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
88 293 সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সহ-সভাপতি, সহ:সাধারণ সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, সাংগঠনিক সম্পাদক, দপ্তর সম্পাদক, ও কার্যকরী সদস্যসহ মোট ৮ জনকে ইউনিয়ন করার কারণে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লি: নামুর, মুচিপাড়া, হেমায়েতপুর, সাভার। ১। রাজিয়া সুলতানা, সভাপতি ২।মোঃ জাফর, সহ: সভাপতি ৩।মোঃ অন্তর, সাধারণ সম্পাদক ৪।মোঃ বুলবুল, সহ:সাধারণ সম্পাদক ৫। মো: সোহেল, কোষাধ্যক্ষ ৬। মোঃ রফিক, সাংগঠনিক সম্পাদক ৭। মোঃ আল আমিন, দপ্তর সম্পাদক ৮। ডলি আক্তার, কার্যকরী সদস্য, কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রোড নং-৩, প্লট-৭, হারুন সুপার মার্কেট, সেনপাড়া, পর্বতা, মিরপুর-১০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯০৭/২০১৭/১২৯০,১২৮৯, ১২৯২, ১২৮৮, ১২৮৭, ১২৮৬, ১২৮৫ তাং-১৮/৯/১৭ এর মাধ্যমে ভিন্ন ভিন্ন স্মারকে ব্যবস্থপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ উল্লেখিত ৮টি অভিযোগের কোন জবাব দাখিল না করায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৭/২০১৭/৩৮৫, তাং-৯/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে দু’জন কর্মকর্তার সমন্বয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কর্মকর্তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করে অভিযোগের বিষযে শ্রমিকপক্ষ এবং মালিকপক্ষের সাথে আলোচনা হয়। উভয়পক্ষ তদন্তকারী কর্মকর্তাদেরকে অবহিত করেন যে, গত ৬/১০/২০১৭ তারিখে বিজিএমইন, গ্রীনবাংলা গার্মেন্টস ওয়াকার্স ফেডারেশন এবং কিউপয়েন্ট শ্রমিক কর্মচারী মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা হয়। সমঝোতার ভিত্তিতে অভিযোগকারীর সকল পাওনা ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক পরিশোধ করা হয়। অভিযোগের বিষয়ে আর কোন আপত্তি না থাকায় ঢাকা বিভাগীয় শ্রম দপ্তরের কর্মকর্তার উপস্থিত্তিতে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম উদ্দিন শ্রম কর্মকর্তা অভিযোগের বিষয়টি নিষ্পত্তি হওয়ায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ-ঢাকা৫২২৯/১৪৬৭, ১৪৬৮, ১৪৬৯, ১৪৭০, ১৪৭২, ১৪৭১, ১৪৭৩, ১৪৭৪ তাং-৩০/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট জনকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
89 294 সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সহ-সভাপতি, সহ:সাধারণ সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, সাংগঠনিক সম্পাদক, দপ্তর সম্পাদক, ও কার্যকরী সদস্যসহ মোট ৮ জনকে ইউনিয়ন করার কারণে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লি: নামুর, মুচিপাড়া, হেমায়েতপুর, সাভার। ১। রাজিয়া সুলতানা, সভাপতি ২।মোঃ জাফর, সহ: সভাপতি ৩।মোঃ অন্তর, সাধারণ সম্পাদক ৪।মোঃ বুলবুল, সহ:সাধারণ সম্পাদক ৫। মো: সোহেল, কোষাধ্যক্ষ ৬। মোঃ রফিক, সাংগঠনিক সম্পাদক ৭। মোঃ আল আমিন, দপ্তর সম্পাদক ৮। ডলি আক্তার, কার্যকরী সদস্য, কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রোড নং-৩, প্লট-৭, হারুন সুপার মার্কেট, সেনপাড়া, পর্বতা, মিরপুর-১০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯০৭/২০১৭/১২৯০,১২৮৯, ১২৯২, ১২৮৮, ১২৮৭, ১২৮৬, ১২৮৫ তাং-১৮/৯/১৭ এর মাধ্যমে ভিন্ন ভিন্ন স্মারকে ব্যবস্থপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ উল্লেখিত ৮টি অভিযোগের কোন জবাব দাখিল না করায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৭/২০১৭/৩৮৫, তাং-৯/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে দু’জন কর্মকর্তার সমন্বয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কর্মকর্তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করে অভিযোগের বিষযে শ্রমিকপক্ষ এবং মালিকপক্ষের সাথে আলোচনা হয়। উভয়পক্ষ তদন্তকারী কর্মকর্তাদেরকে অবহিত করেন যে, গত ৬/১০/২০১৭ তারিখে বিজিএমইন, গ্রীনবাংলা গার্মেন্টস ওয়াকার্স ফেডারেশন এবং কিউপয়েন্ট শ্রমিক কর্মচারী মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা হয়। সমঝোতার ভিত্তিতে অভিযোগকারীর সকল পাওনা ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক পরিশোধ করা হয়। অভিযোগের বিষয়ে আর কোন আপত্তি না থাকায় ঢাকা বিভাগীয় শ্রম দপ্তরের কর্মকর্তার উপস্থিত্তিতে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম উদ্দিন শ্রম কর্মকর্তা অভিযোগের বিষয়টি নিষ্পত্তি হওয়ায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ-ঢাকা৫২২৯/১৪৬৭, ১৪৬৮, ১৪৬৯, ১৪৭০, ১৪৭২, ১৪৭১, ১৪৭৩, ১৪৭৪ তাং-৩০/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট জনকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
90 295 সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সহ-সভাপতি, সহ:সাধারণ সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, সাংগঠনিক সম্পাদক, দপ্তর সম্পাদক, ও কার্যকরী সদস্যসহ মোট ৮ জনকে ইউনিয়ন করার কারণে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লি: নামুর, মুচিপাড়া, হেমায়েতপুর, সাভার। ১। রাজিয়া সুলতানা, সভাপতি ২।মোঃ জাফর, সহ: সভাপতি ৩।মোঃ অন্তর, সাধারণ সম্পাদক ৪।মোঃ বুলবুল, সহ:সাধারণ সম্পাদক ৫। মো: সোহেল, কোষাধ্যক্ষ ৬। মোঃ রফিক, সাংগঠনিক সম্পাদক ৭। মোঃ আল আমিন, দপ্তর সম্পাদক ৮। ডলি আক্তার, কার্যকরী সদস্য, কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রোড নং-৩, প্লট-৭, হারুন সুপার মার্কেট, সেনপাড়া, পর্বতা, মিরপুর-১০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯০৭/২০১৭/১২৯০,১২৮৯, ১২৯২, ১২৮৮, ১২৮৭, ১২৮৬, ১২৮৫ তাং-১৮/৯/১৭ এর মাধ্যমে ভিন্ন ভিন্ন স্মারকে ব্যবস্থপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ উল্লেখিত ৮টি অভিযোগের কোন জবাব দাখিল না করায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৭/২০১৭/৩৮৫, তাং-৯/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে দু’জন কর্মকর্তার সমন্বয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কর্মকর্তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করে অভিযোগের বিষযে শ্রমিকপক্ষ এবং মালিকপক্ষের সাথে আলোচনা হয়। উভয়পক্ষ তদন্তকারী কর্মকর্তাদেরকে অবহিত করেন যে, গত ৬/১০/২০১৭ তারিখে বিজিএমইন, গ্রীনবাংলা গার্মেন্টস ওয়াকার্স ফেডারেশন এবং কিউপয়েন্ট শ্রমিক কর্মচারী মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা হয়। সমঝোতার ভিত্তিতে অভিযোগকারীর সকল পাওনা ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক পরিশোধ করা হয়। অভিযোগের বিষয়ে আর কোন আপত্তি না থাকায় ঢাকা বিভাগীয় শ্রম দপ্তরের কর্মকর্তার উপস্থিত্তিতে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম উদ্দিন শ্রম কর্মকর্তা অভিযোগের বিষয়টি নিষ্পত্তি হওয়ায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ-ঢাকা৫২২৯/১৪৬৭, ১৪৬৮, ১৪৬৯, ১৪৭০, ১৪৭২, ১৪৭১, ১৪৭৩, ১৪৭৪ তাং-৩০/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট জনকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
91 296 সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সহ-সভাপতি, সহ:সাধারণ সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, সাংগঠনিক সম্পাদক, দপ্তর সম্পাদক, ও কার্যকরী সদস্যসহ মোট ৮ জনকে ইউনিয়ন করার কারণে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লি: নামুর, মুচিপাড়া, হেমায়েতপুর, সাভার। ১। রাজিয়া সুলতানা, সভাপতি ২।মোঃ জাফর, সহ: সভাপতি ৩।মোঃ অন্তর, সাধারণ সম্পাদক ৪।মোঃ বুলবুল, সহ:সাধারণ সম্পাদক ৫। মো: সোহেল, কোষাধ্যক্ষ ৬। মোঃ রফিক, সাংগঠনিক সম্পাদক ৭। মোঃ আল আমিন, দপ্তর সম্পাদক ৮। ডলি আক্তার, কার্যকরী সদস্য, কিউ পয়েন্ট ফ্যাশন লিঃ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, রোড নং-৩, প্লট-৭, হারুন সুপার মার্কেট, সেনপাড়া, পর্বতা, মিরপুর-১০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯০৭/২০১৭/১২৯০,১২৮৯, ১২৯২, ১২৮৮, ১২৮৭, ১২৮৬, ১২৮৫ তাং-১৮/৯/১৭ এর মাধ্যমে ভিন্ন ভিন্ন স্মারকে ব্যবস্থপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ উল্লেখিত ৮টি অভিযোগের কোন জবাব দাখিল না করায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৭/২০১৭/৩৮৫, তাং-৯/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে দু’জন কর্মকর্তার সমন্বয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কর্মকর্তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করে অভিযোগের বিষযে শ্রমিকপক্ষ এবং মালিকপক্ষের সাথে আলোচনা হয়। উভয়পক্ষ তদন্তকারী কর্মকর্তাদেরকে অবহিত করেন যে, গত ৬/১০/২০১৭ তারিখে বিজিএমইন, গ্রীনবাংলা গার্মেন্টস ওয়াকার্স ফেডারেশন এবং কিউপয়েন্ট শ্রমিক কর্মচারী মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা হয়। সমঝোতার ভিত্তিতে অভিযোগকারীর সকল পাওনা ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক পরিশোধ করা হয়। অভিযোগের বিষয়ে আর কোন আপত্তি না থাকায় ঢাকা বিভাগীয় শ্রম দপ্তরের কর্মকর্তার উপস্থিত্তিতে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম উদ্দিন শ্রম কর্মকর্তা অভিযোগের বিষয়টি নিষ্পত্তি হওয়ায় এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ-ঢাকা৫২২৯/১৪৬৭, ১৪৬৮, ১৪৬৯, ১৪৭০, ১৪৭২, ১৪৭১, ১৪৭৩, ১৪৭৪ তাং-৩০/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট জনকে জানিয়ে দেয়া হয়। নিষ্পত্তি
92 4814 ইউনিয়নের সংগঠনিক সম্পাদক এবং সহ সাংগঠনিক সম্পাদককে চাকুরীচ্যূতি করার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। কলোসাম এপারেলস লি: ইউনিট-২ মোদায়াল, চৌরাস্তা, গাজীপুর। মোছাঃ রিমা, নারী বিষয়ক সম্পাদক এবং মোসা: ফরিদা, সংগঠনিক সম্পাদক, কলোসাম এপারেলস লিঃ ইউনিট-২, শ্রমিক ইউনিয়ন রেজি:নং-৫১৯৪, শাওন সুপার মার্কেট, বাসন সড়ক, গাজীপুর। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৫১৯৪/১৩৩৫ এবং ১৩৩৪, তাং ২৭/৯/২০১৭ এর মাধ্যমে ব্যবকর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ থেকে কোন জবাব দাখিল না করায় এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫১৯৪/১৩৬০, তাং-৯/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। মহব্বত হোসাইন, উপপরিচালক এবং মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন খান, সহ: পরিচালক নিষ্পত্তি
93 4815 ইউনিয়নের সংগঠনিক সম্পাদক এবং সহ সাংগঠনিক সম্পাদককে চাকুরীচ্যূতি করার বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে। কলোসাম এপারেলস লি: ইউনিট-২ মোদায়াল, চৌরাস্তা, গাজীপুর। মোছাঃ রিমা, নারী বিষয়ক সম্পাদক এবং মোসা: ফরিদা, সংগঠনিক সম্পাদক, কলোসাম এপারেলস লিঃ ইউনিট-২, শ্রমিক ইউনিয়ন রেজি:নং-৫১৯৪, শাওন সুপার মার্কেট, বাসন সড়ক, গাজীপুর। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৫১৯৪/১৩৩৫ এবং ১৩৩৪, তাং ২৭/৯/২০১৭ এর মাধ্যমে ব্যবকর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ থেকে কোন জবাব দাখিল না করায় এ দপ্তরের পত্র নং আরটিইউ/ঢাকা-৫১৯৪/১৩৬০, তাং-৯/১০/২০১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। মহব্বত হোসাইন, উপপরিচালক এবং মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন খান, সহ: পরিচালক নিষ্পত্তি
94 5488 ইউনিয়নের সহ:সম্পাদককে ট্রেড ইউনিয়ন করার কারণে বেআইনীভাবে চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তপক্ষের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন প্রসঙ্গে। গুড ডে এপারেলস লিঃ বাড়ী-৭৯, এয়ারপোর্ট চেয়ারম্যান বাড়ী, বনানী, ঢাকা-১২১৩ অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/২৩/২০১৭/৪৫২, তাং-৬/১১/২০১৭ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক জবাব প্রদান করা হয়। অভিযোগ এবং জবাব এর বিষয়ে তদন্তের জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/২৩/২০১৭/৪৮১, তাং-১৫/১১/১৭ সমন্বয়ে কমিটি গঠন করা হয়। মহব্বত হোসাইন, উপপরিচালক এবং মোঃ আবু হাসমত , সহ:শ্রম পরিচালক নিষ্পত্তি
95 300 ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ কার্যনির্বাহী কমিটির ৮ জনকে ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক চাকুরীচ্যুতি বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ প্রসঙ্গে। এম ও এফ ফ্যাশন লি:,৪১/১, কাজী মোজাম্মেল হক রোড, গাজীপুর, টঙ্গী, গাজীপুর। হোসেন আরা, সভাপতি, মোঃ শামীম, সহ-সভাপতি, সালমা, সা: সম্পাদক, মোসা: লিপি সাংগঠনিক সম্পাদক, নারগিস (সদস্য), রুমা(সদস্য), মজিবুর (সদস্য) এম ও এফ ফ্যাশন শ্রমিক ইউনিয়ন দারুস সালাম আর্কিড রোড, পুরানা পল্টন, রুম-০৬, ঢাকা-১০০০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/১২৯৮, ১২৯৯, ১৩০০, ১৩০১, ১৩০২, ১৩০৩, ১৩০৪, ১৩০৫, তাং-২০/৯/১৭ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। এ দপ্তরের পত্রের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ২৫/৯/১৭ তারিখে অভিযোগের বিষয়ে জবাব প্রদান করা হয়। জবাব এবং অভিযোগের বিষয়ে তদন্তের জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/৩৯০ তাং-৯/১০/১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কর্মকর্তাদ্বয় ২/১১/১৭ তারিখে প্রতিবেদন এর মাধ্যমে জানান যে, উল্লেখিত ৮ সদস্যকে ইউনিয়ন করার কারণে ৩১/৮/১৭ তারিক হতে কাজ করা থেকে বিরত রাখা হয়েছে, যা বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা ১৯৫(ক),(খ),(গ) এবং(চ) এর সুষ্পষ্ট লংঘন। মতামত বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ এর ১৯৫ ধারায় মালিক কর্তৃক অসৎশ্রম আচরন সংগঠনের বিষয়াদি বিধৃত হয়েছে। তদন্তে প্রাপ্ত স্বাক্ষ্য প্রমাণাদি পর্যালোচনায এম.ও.এফ ফ্যাশনস শ্রমিক ইউ. রেজি:নং-৫২২৮ এর সদস্যগণের কর্তৃক এ ওএফ লি: এর ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইত গত১৮/৯/১৭ তারিখে অসৎশ্রম আচরণ লংঘনের অভিযোগের সত্যতা প্রতিহত হয়েছে। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম ‍উদ্দিন, শ্রম কর্মকর্তা কর্মকতঅদের প্রতিবেদনের আলোকে মাননীয় ২য় শ্রম আদালতে ১৮২/২০১৭ এবং ১৮৩/২০১৭ মামলা ৪/১২/১৭ তারিখে দায়ের করা হয়। ১৮৫/২০১৭, ১৮৬/২০১৭, ১৮৮/২০১৭, ১৮৯/২০১৭, ১৯০/২০১৭, ১৯১/২০১৭ মামলা দায়ের করা হয়। ফৌজদারী মামলা চলমান
96 301 ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ কার্যনির্বাহী কমিটির ৮ জনকে ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক চাকুরীচ্যুতি বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ প্রসঙ্গে। এম ও এফ ফ্যাশন লি:,৪১/১, কাজী মোজাম্মেল হক রোড, গাজীপুর, টঙ্গী, গাজীপুর। হোসেন আরা, সভাপতি, মোঃ শামীম, সহ-সভাপতি, সালমা, সা: সম্পাদক, মোসা: লিপি সাংগঠনিক সম্পাদক, নারগিস (সদস্য), রুমা(সদস্য), মজিবুর (সদস্য) এম ও এফ ফ্যাশন শ্রমিক ইউনিয়ন দারুস সালাম আর্কিড রোড, পুরানা পল্টন, রুম-০৬, ঢাকা-১০০০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/১২৯৮, ১২৯৯, ১৩০০, ১৩০১, ১৩০২, ১৩০৩, ১৩০৪, ১৩০৫, তাং-২০/৯/১৭ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। এ দপ্তরের পত্রের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ২৫/৯/১৭ তারিখে অভিযোগের বিষয়ে জবাব প্রদান করা হয়। জবাব এবং অভিযোগের বিষয়ে তদন্তের জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/৩৯০ তাং-৯/১০/১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কর্মকর্তাদ্বয় ২/১১/১৭ তারিখে প্রতিবেদন এর মাধ্যমে জানান যে, উল্লেখিত ৮ সদস্যকে ইউনিয়ন করার কারণে ৩১/৮/১৭ তারিক হতে কাজ করা থেকে বিরত রাখা হয়েছে, যা বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা ১৯৫(ক),(খ),(গ) এবং(চ) এর সুষ্পষ্ট লংঘন। মতামত বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ এর ১৯৫ ধারায় মালিক কর্তৃক অসৎশ্রম আচরন সংগঠনের বিষয়াদি বিধৃত হয়েছে। তদন্তে প্রাপ্ত স্বাক্ষ্য প্রমাণাদি পর্যালোচনায এম.ও.এফ ফ্যাশনস শ্রমিক ইউ. রেজি:নং-৫২২৮ এর সদস্যগণের কর্তৃক এ ওএফ লি: এর ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইত গত১৮/৯/১৭ তারিখে অসৎশ্রম আচরণ লংঘনের অভিযোগের সত্যতা প্রতিহত হয়েছে। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম ‍উদ্দিন, শ্রম কর্মকর্তা কর্মকতঅদের প্রতিবেদনের আলোকে মাননীয় ২য় শ্রম আদালতে ১৮২/২০১৭ এবং ১৮৩/২০১৭ মামলা ৪/১২/১৭ তারিখে দায়ের করা হয়। ১৮৫/২০১৭, ১৮৬/২০১৭, ১৮৮/২০১৭, ১৮৯/২০১৭, ১৯০/২০১৭, ১৯১/২০১৭ মামলা দায়ের করা হয়। ফৌজদারী মামলা চলমান
97 302 ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ কার্যনির্বাহী কমিটির ৮ জনকে ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক চাকুরীচ্যুতি বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ প্রসঙ্গে। এম ও এফ ফ্যাশন লি:,৪১/১, কাজী মোজাম্মেল হক রোড, গাজীপুর, টঙ্গী, গাজীপুর। হোসেন আরা, সভাপতি, মোঃ শামীম, সহ-সভাপতি, সালমা, সা: সম্পাদক, মোসা: লিপি সাংগঠনিক সম্পাদক, নারগিস (সদস্য), রুমা(সদস্য), মজিবুর (সদস্য) এম ও এফ ফ্যাশন শ্রমিক ইউনিয়ন দারুস সালাম আর্কিড রোড, পুরানা পল্টন, রুম-০৬, ঢাকা-১০০০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/১২৯৮, ১২৯৯, ১৩০০, ১৩০১, ১৩০২, ১৩০৩, ১৩০৪, ১৩০৫, তাং-২০/৯/১৭ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। এ দপ্তরের পত্রের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ২৫/৯/১৭ তারিখে অভিযোগের বিষয়ে জবাব প্রদান করা হয়। জবাব এবং অভিযোগের বিষয়ে তদন্তের জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/৩৯০ তাং-৯/১০/১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কর্মকর্তাদ্বয় ২/১১/১৭ তারিখে প্রতিবেদন এর মাধ্যমে জানান যে, উল্লেখিত ৮ সদস্যকে ইউনিয়ন করার কারণে ৩১/৮/১৭ তারিক হতে কাজ করা থেকে বিরত রাখা হয়েছে, যা বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা ১৯৫(ক),(খ),(গ) এবং(চ) এর সুষ্পষ্ট লংঘন। মতামত বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ এর ১৯৫ ধারায় মালিক কর্তৃক অসৎশ্রম আচরন সংগঠনের বিষয়াদি বিধৃত হয়েছে। তদন্তে প্রাপ্ত স্বাক্ষ্য প্রমাণাদি পর্যালোচনায এম.ও.এফ ফ্যাশনস শ্রমিক ইউ. রেজি:নং-৫২২৮ এর সদস্যগণের কর্তৃক এ ওএফ লি: এর ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইত গত১৮/৯/১৭ তারিখে অসৎশ্রম আচরণ লংঘনের অভিযোগের সত্যতা প্রতিহত হয়েছে। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম ‍উদ্দিন, শ্রম কর্মকর্তা কর্মকতঅদের প্রতিবেদনের আলোকে মাননীয় ২য় শ্রম আদালতে ১৮২/২০১৭ এবং ১৮৩/২০১৭ মামলা ৪/১২/১৭ তারিখে দায়ের করা হয়। ১৮৫/২০১৭, ১৮৬/২০১৭, ১৮৮/২০১৭, ১৮৯/২০১৭, ১৯০/২০১৭, ১৯১/২০১৭ মামলা দায়ের করা হয়। ফৌজদারী মামলা চলমান
98 303 ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ কার্যনির্বাহী কমিটির ৮ জনকে ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক চাকুরীচ্যুতি বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ প্রসঙ্গে। এম ও এফ ফ্যাশন লি:,৪১/১, কাজী মোজাম্মেল হক রোড, গাজীপুর, টঙ্গী, গাজীপুর। হোসেন আরা, সভাপতি, মোঃ শামীম, সহ-সভাপতি, সালমা, সা: সম্পাদক, মোসা: লিপি সাংগঠনিক সম্পাদক, নারগিস (সদস্য), রুমা(সদস্য), মজিবুর (সদস্য) এম ও এফ ফ্যাশন শ্রমিক ইউনিয়ন দারুস সালাম আর্কিড রোড, পুরানা পল্টন, রুম-০৬, ঢাকা-১০০০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/১২৯৮, ১২৯৯, ১৩০০, ১৩০১, ১৩০২, ১৩০৩, ১৩০৪, ১৩০৫, তাং-২০/৯/১৭ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। এ দপ্তরের পত্রের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ২৫/৯/১৭ তারিখে অভিযোগের বিষয়ে জবাব প্রদান করা হয়। জবাব এবং অভিযোগের বিষয়ে তদন্তের জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/৩৯০ তাং-৯/১০/১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কর্মকর্তাদ্বয় ২/১১/১৭ তারিখে প্রতিবেদন এর মাধ্যমে জানান যে, উল্লেখিত ৮ সদস্যকে ইউনিয়ন করার কারণে ৩১/৮/১৭ তারিক হতে কাজ করা থেকে বিরত রাখা হয়েছে, যা বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা ১৯৫(ক),(খ),(গ) এবং(চ) এর সুষ্পষ্ট লংঘন। মতামত বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ এর ১৯৫ ধারায় মালিক কর্তৃক অসৎশ্রম আচরন সংগঠনের বিষয়াদি বিধৃত হয়েছে। তদন্তে প্রাপ্ত স্বাক্ষ্য প্রমাণাদি পর্যালোচনায এম.ও.এফ ফ্যাশনস শ্রমিক ইউ. রেজি:নং-৫২২৮ এর সদস্যগণের কর্তৃক এ ওএফ লি: এর ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইত গত১৮/৯/১৭ তারিখে অসৎশ্রম আচরণ লংঘনের অভিযোগের সত্যতা প্রতিহত হয়েছে। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম ‍উদ্দিন, শ্রম কর্মকর্তা কর্মকতঅদের প্রতিবেদনের আলোকে মাননীয় ২য় শ্রম আদালতে ১৮২/২০১৭ এবং ১৮৩/২০১৭ মামলা ৪/১২/১৭ তারিখে দায়ের করা হয়। ১৮৫/২০১৭, ১৮৬/২০১৭, ১৮৮/২০১৭, ১৮৯/২০১৭, ১৯০/২০১৭, ১৯১/২০১৭ মামলা দায়ের করা হয়। ফৌজদারী মামলা চলমান
99 304 ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ কার্যনির্বাহী কমিটির ৮ জনকে ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক চাকুরীচ্যুতি বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ প্রসঙ্গে। এম ও এফ ফ্যাশন লি:,৪১/১, কাজী মোজাম্মেল হক রোড, গাজীপুর, টঙ্গী, গাজীপুর। হোসেন আরা, সভাপতি, মোঃ শামীম, সহ-সভাপতি, সালমা, সা: সম্পাদক, মোসা: লিপি সাংগঠনিক সম্পাদক, নারগিস (সদস্য), রুমা(সদস্য), মজিবুর (সদস্য) এম ও এফ ফ্যাশন শ্রমিক ইউনিয়ন দারুস সালাম আর্কিড রোড, পুরানা পল্টন, রুম-০৬, ঢাকা-১০০০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/১২৯৮, ১২৯৯, ১৩০০, ১৩০১, ১৩০২, ১৩০৩, ১৩০৪, ১৩০৫, তাং-২০/৯/১৭ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। এ দপ্তরের পত্রের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ২৫/৯/১৭ তারিখে অভিযোগের বিষয়ে জবাব প্রদান করা হয়। জবাব এবং অভিযোগের বিষয়ে তদন্তের জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/৩৯০ তাং-৯/১০/১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কর্মকর্তাদ্বয় ২/১১/১৭ তারিখে প্রতিবেদন এর মাধ্যমে জানান যে, উল্লেখিত ৮ সদস্যকে ইউনিয়ন করার কারণে ৩১/৮/১৭ তারিক হতে কাজ করা থেকে বিরত রাখা হয়েছে, যা বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা ১৯৫(ক),(খ),(গ) এবং(চ) এর সুষ্পষ্ট লংঘন। মতামত বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ এর ১৯৫ ধারায় মালিক কর্তৃক অসৎশ্রম আচরন সংগঠনের বিষয়াদি বিধৃত হয়েছে। তদন্তে প্রাপ্ত স্বাক্ষ্য প্রমাণাদি পর্যালোচনায এম.ও.এফ ফ্যাশনস শ্রমিক ইউ. রেজি:নং-৫২২৮ এর সদস্যগণের কর্তৃক এ ওএফ লি: এর ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইত গত১৮/৯/১৭ তারিখে অসৎশ্রম আচরণ লংঘনের অভিযোগের সত্যতা প্রতিহত হয়েছে। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম ‍উদ্দিন, শ্রম কর্মকর্তা কর্মকতঅদের প্রতিবেদনের আলোকে মাননীয় ২য় শ্রম আদালতে ১৮২/২০১৭ এবং ১৮৩/২০১৭ মামলা ৪/১২/১৭ তারিখে দায়ের করা হয়। ১৮৫/২০১৭, ১৮৬/২০১৭, ১৮৮/২০১৭, ১৮৯/২০১৭, ১৯০/২০১৭, ১৯১/২০১৭ মামলা দায়ের করা হয়। ফৌজদারী মামলা চলমান
100 305 ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ কার্যনির্বাহী কমিটির ৮ জনকে ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক চাকুরীচ্যুতি বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ প্রসঙ্গে। এম ও এফ ফ্যাশন লি:,৪১/১, কাজী মোজাম্মেল হক রোড, গাজীপুর, টঙ্গী, গাজীপুর। হোসেন আরা, সভাপতি, মোঃ শামীম, সহ-সভাপতি, সালমা, সা: সম্পাদক, মোসা: লিপি সাংগঠনিক সম্পাদক, নারগিস (সদস্য), রুমা(সদস্য), মজিবুর (সদস্য) এম ও এফ ফ্যাশন শ্রমিক ইউনিয়ন দারুস সালাম আর্কিড রোড, পুরানা পল্টন, রুম-০৬, ঢাকা-১০০০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/১২৯৮, ১২৯৯, ১৩০০, ১৩০১, ১৩০২, ১৩০৩, ১৩০৪, ১৩০৫, তাং-২০/৯/১৭ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। এ দপ্তরের পত্রের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ২৫/৯/১৭ তারিখে অভিযোগের বিষয়ে জবাব প্রদান করা হয়। জবাব এবং অভিযোগের বিষয়ে তদন্তের জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/৩৯০ তাং-৯/১০/১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কর্মকর্তাদ্বয় ২/১১/১৭ তারিখে প্রতিবেদন এর মাধ্যমে জানান যে, উল্লেখিত ৮ সদস্যকে ইউনিয়ন করার কারণে ৩১/৮/১৭ তারিক হতে কাজ করা থেকে বিরত রাখা হয়েছে, যা বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা ১৯৫(ক),(খ),(গ) এবং(চ) এর সুষ্পষ্ট লংঘন। মতামত বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ এর ১৯৫ ধারায় মালিক কর্তৃক অসৎশ্রম আচরন সংগঠনের বিষয়াদি বিধৃত হয়েছে। তদন্তে প্রাপ্ত স্বাক্ষ্য প্রমাণাদি পর্যালোচনায এম.ও.এফ ফ্যাশনস শ্রমিক ইউ. রেজি:নং-৫২২৮ এর সদস্যগণের কর্তৃক এ ওএফ লি: এর ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইত গত১৮/৯/১৭ তারিখে অসৎশ্রম আচরণ লংঘনের অভিযোগের সত্যতা প্রতিহত হয়েছে। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম ‍উদ্দিন, শ্রম কর্মকর্তা কর্মকতঅদের প্রতিবেদনের আলোকে মাননীয় ২য় শ্রম আদালতে ১৮২/২০১৭ এবং ১৮৩/২০১৭ মামলা ৪/১২/১৭ তারিখে দায়ের করা হয়। ১৮৫/২০১৭, ১৮৬/২০১৭, ১৮৮/২০১৭, ১৮৯/২০১৭, ১৯০/২০১৭, ১৯১/২০১৭ মামলা দায়ের করা হয়। ফৌজদারী মামলা চলমান
101 306 ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ কার্যনির্বাহী কমিটির ৮ জনকে ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক চাকুরীচ্যুতি বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ প্রসঙ্গে। এম ও এফ ফ্যাশন লি:,৪১/১, কাজী মোজাম্মেল হক রোড, গাজীপুর, টঙ্গী, গাজীপুর। হোসেন আরা, সভাপতি, মোঃ শামীম, সহ-সভাপতি, সালমা, সা: সম্পাদক, মোসা: লিপি সাংগঠনিক সম্পাদক, নারগিস (সদস্য), রুমা(সদস্য), মজিবুর (সদস্য) এম ও এফ ফ্যাশন শ্রমিক ইউনিয়ন দারুস সালাম আর্কিড রোড, পুরানা পল্টন, রুম-০৬, ঢাকা-১০০০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/১২৯৮, ১২৯৯, ১৩০০, ১৩০১, ১৩০২, ১৩০৩, ১৩০৪, ১৩০৫, তাং-২০/৯/১৭ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। এ দপ্তরের পত্রের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ২৫/৯/১৭ তারিখে অভিযোগের বিষয়ে জবাব প্রদান করা হয়। জবাব এবং অভিযোগের বিষয়ে তদন্তের জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/৩৯০ তাং-৯/১০/১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কর্মকর্তাদ্বয় ২/১১/১৭ তারিখে প্রতিবেদন এর মাধ্যমে জানান যে, উল্লেখিত ৮ সদস্যকে ইউনিয়ন করার কারণে ৩১/৮/১৭ তারিক হতে কাজ করা থেকে বিরত রাখা হয়েছে, যা বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা ১৯৫(ক),(খ),(গ) এবং(চ) এর সুষ্পষ্ট লংঘন। মতামত বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ এর ১৯৫ ধারায় মালিক কর্তৃক অসৎশ্রম আচরন সংগঠনের বিষয়াদি বিধৃত হয়েছে। তদন্তে প্রাপ্ত স্বাক্ষ্য প্রমাণাদি পর্যালোচনায এম.ও.এফ ফ্যাশনস শ্রমিক ইউ. রেজি:নং-৫২২৮ এর সদস্যগণের কর্তৃক এ ওএফ লি: এর ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইত গত১৮/৯/১৭ তারিখে অসৎশ্রম আচরণ লংঘনের অভিযোগের সত্যতা প্রতিহত হয়েছে। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম ‍উদ্দিন, শ্রম কর্মকর্তা কর্মকতঅদের প্রতিবেদনের আলোকে মাননীয় ২য় শ্রম আদালতে ১৮২/২০১৭ এবং ১৮৩/২০১৭ মামলা ৪/১২/১৭ তারিখে দায়ের করা হয়। ১৮৫/২০১৭, ১৮৬/২০১৭, ১৮৮/২০১৭, ১৮৯/২০১৭, ১৯০/২০১৭, ১৯১/২০১৭ মামলা দায়ের করা হয়। ফৌজদারী মামলা চলমান
102 307 ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ কার্যনির্বাহী কমিটির ৮ জনকে ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক চাকুরীচ্যুতি বিষয়ে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ প্রসঙ্গে। এম ও এফ ফ্যাশন লি:, ৪১/১, কাজী মোজাম্মেল হক রোড, গাজীপুর, টঙ্গী, গাজীপুর। হোসেন আরা, সভাপতি, মোঃ শামীম, সহ-সভাপতি, সালমা, সা: সম্পাদক, মোসা: লিপি সাংগঠনিক সম্পাদক, নারগিস (সদস্য), রুমা(সদস্য), মজিবুর (সদস্য) এম ও এফ ফ্যাশন শ্রমিক ইউনিয়ন দারুস সালাম আর্কিড রোড, পুরানা পল্টন, রুম-০৬, ঢাকা-১০০০। অভিযোগ প্রাপ্তির পর এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/১২৯৮, ১২৯৯, ১৩০০, ১৩০১, ১৩০২, ১৩০৩, ১৩০৪, ১৩০৫, তাং-২০/৯/১৭ এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের নিকট জবাব চাওয়া হয়। এ দপ্তরের পত্রের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ২৫/৯/১৭ তারিখে অভিযোগের বিষয়ে জবাব প্রদান করা হয়। জবাব এবং অভিযোগের বিষয়ে তদন্তের জন্য এ দপ্তরের পত্র নং-আরটিইউ/৯৩৩/২০১৭/৩৯০ তাং-৯/১০/১৭ এর মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কর্মকর্তাদ্বয় ২/১১/১৭ তারিখে প্রতিবেদন এর মাধ্যমে জানান যে, উল্লেখিত ৮ সদস্যকে ইউনিয়ন করার কারণে ৩১/৮/১৭ তারিক হতে কাজ করা থেকে বিরত রাখা হয়েছে, যা বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা ১৯৫(ক),(খ),(গ) এবং(চ) এর সুষ্পষ্ট লংঘন। মতামত বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ এর ১৯৫ ধারায় মালিক কর্তৃক অসৎশ্রম আচরন সংগঠনের বিষয়াদি বিধৃত হয়েছে। তদন্তে প্রাপ্ত স্বাক্ষ্য প্রমাণাদি পর্যালোচনায এম.ও.এফ ফ্যাশনস শ্রমিক ইউ. রেজি:নং-৫২২৮ এর সদস্যগণের কর্তৃক এ ওএফ লি: এর ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইত গত১৮/৯/১৭ তারিখে অসৎশ্রম আচরণ লংঘনের অভিযোগের সত্যতা প্রতিহত হয়েছে। মোঃ সাইকুল ইসলাম, উপপরিচালক এবং মোঃ নাজিম ‍উদ্দিন, শ্রম কর্মকর্তা কর্মকতঅদের প্রতিবেদনের আলোকে মাননীয় ২য় শ্রম আদালতে ১৮২/২০১৭ এবং ১৮৩/২০১৭ মামলা ৪/১২/১৭ তারিখে দায়ের করা হয়। ১৮৫/২০১৭, ১৮৬/২০১৭, ১৮৮/২০১৭, ১৮৯/২০১৭, ১৯০/২০১৭, ১৯১/২০১৭ মামলা দায়ের করা হয়। ফৌজদারী মামলা চলমান